নয়াদিল্লি: কেন্দ্রের সঙ্গে সহমত পোষণ করে গুগল,ফেসবুক এবং হোয়াটসঅ্যাপ রাজি হয়েছে চাইল্ড পর্নোগ্রাফি, ধর্ষণের ভিডিয়ো এবং অন্যান্য আপত্তিকর তথ্য ও ভিডিয়ো সরিয়ে দিতে ৷ কেন্দ্র ইতিমধ্যেই এই তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলিকে এই ধরণের আপত্তিকর বিষয়বস্তু সরাতে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবও দিয়েছিল। তার প্রেক্ষিতে বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার প্রতিক্রিয়াও পৌঁছেছে কেন্দ্রের কাছে। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে এই কথা জানিয়েছেন বিচারপতি এম বি লোকুর এবং বিচারপতি ইউ ইউ ললিতের ডিভিশন বেঞ্চ।

ইন্টারনেট থেকে আপত্তিকর বিষয়বস্তু মুছে দিতে কেন্দ্র এই সব সংস্থাগুলির কাছে বিভিন্ন নজরদারি প্রযুক্তি বসানোর প্রস্তাব দেয়। এক্ষেত্রে কেন্দ্র আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রযুক্তি ব্যবহার করার পরামর্শও দিয়েছিল। যাতে ওই সব আপত্তিকর বিষয়বস্তু নিজে থেকেই মুছে ফেলা সম্ভব। কেন্দ্রের এমন পরামর্শে ওই সব সংস্থাগুলির কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের প্রতিক্রিয়া মিলেছে।

দেখা গিয়েছে গুগল এবং ইউটিউব যে জবাব দিয়েছে তার থেকে আলাদা জবাব এসেছে হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুকের কাছ থেকে। তবে শুনানির সময় হোয়াটসঅ্যাপের দেওয়া বক্তব্য নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্নমহলে৷

এই বিষয়ে পাওয়া বিভিন্ন সংস্থার কাছ থেকে পাওয়া প্রতিক্রিয়া ভিত্তিতে খসড়া বিধি তৈরি হবে। এমনটাই জানিয়েছে শীর্ষ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চ। ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে এই খসড়া আদালতে পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। তার পর সুপ্রিম কোর্ট সেই খসড়া পাঠান হবে মতামতের জন্য ।

1 COMMENT

Comments are closed.