কলকাতা: আইএসএল’র পঞ্চম মরশুমে এটিকে’র অধিনায়কত্বের দায়িত্ব সামলাবেন ম্যানুয়েল ল্যাঞ্জারোট। বৃহস্পতিবার দলের জার্সি উন্মোচন অনুষ্ঠানে অধিনায়কের আর্মব্যান্ড তুলে দেওয়া হল ৩৪ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডারের হাতে।

গত মরশুমে এফসি গোয়ার হয়ে দুরন্ত ফুটবল খেলেছিলেন এই স্প্যানীশ অ্যাটাকিং মিডিও। ইন্ডিয়ান সুপার লিগের চতুর্থ সংস্করণে ছ’টি আসিস্ট সহ ১৩ টি গোল লেখা ছিল ল্যাঞ্জারোটের নামের পাশে। তাই এ মরশুমে দলে তাঁর উপস্থিতি এটিকে’র মাঝমাঠের শক্তি যে অনেকটাই বাড়াবে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। আপফ্রন্টে ল্যাঞ্জারোটের সঙ্গে সৌরভের দলের ভরসা ৩৫ বছর বয়সী নাইজিরিয়ান স্ট্রাইকার কালু উচে এবং ৩১ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার এভার্টন স্যান্টোস।

গত মরশুমে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর নতুন মরশুমে ভাল কিছু করার তাগিদ নিয়েই মাঠে নামবে দু’বারের চ্যাম্পিয়নরা। নতুন মরশুমে ডাগ আউটে বসে এটিকে’র দায়িত্ব সামলাবেন স্টিভ কপেল। কপেলের প্রশিক্ষনেই প্রথম মরশুমে রানার্স হয়েছিল কেরল ব্লাস্টার্স। গত মরশুমে আবির্ভাবে জামশেদপুর সিটি এফসি পঞ্চম স্থানে শেষ করেছিল কপেলের প্রশিক্ষণে। এবার এটিকে’র গুরুদায়িত্ব বর্তেছে এই ইংরেজ কোচের উপর। সহকারী হিসেবে রয়েছেন ময়দানের পোড় খাওয়া কোচ সঞ্জয় সেন। জার্সি আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে এটিকে কোচ জানান, ‘খেলতে নামার জন্য মুখিয়ে রয়েছি আমরা। স্পেনে প্রি-সিজন ক্যাম্প ভীষণই ফলপ্রসূ হয়েছে। দলের প্রত্যেককে দেখে নেওয়ার সুযোগ পেয়েছি। এবার আসল মঞ্চে নেমে নিজেদের প্রমাণ করতে মরিয়া ছেলেরা।’

আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর আইএসএল’র পঞ্চম সংস্করণের প্রথম ম্যাচেই কেরল ব্লাস্টার্সের মুখোমুখি হবে এটিকে। তার আগে বৃহস্পতিবার হয়ে গেল জার্সি আত্মপ্রকাশ। জার্সি আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে আগামী মরশুমে আইএসএলে ইস্ট-মোহন দুই প্রধানের অংশগ্রহণ নিয়ে নিজের মতামত জানান এটিকে কর্ণধার সঞ্জীব গোয়েঙ্কা। তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলা ফুটবলের উন্নতির স্বার্থে। তাই বাংলা থেকে তিনটি দল আইএসএলে অংশগ্রহণ করলে আখেরে লাভ আমাদেরই। ট্রফি জয়ের সুযোগ অনেকটাই বেড়ে যাবে।’ অনুষ্ঠানে কলকাতার দুই প্রধানকে ‘বড় দাদা’ বলেও অভিহিত করেন তিনি।