নয়াদিল্লি: পুজোর আগেই যাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে নতুন একটি পরিষেবা চালু করতে চলেছে ভারতীয় রেল। নতুন এই পরিষেবার বিষয়ে রেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, ট্রেনের টিকিট কাটার পরে তা বাতিল করতে চাইলে এবার থেকে যাত্রীরা সরাসরি আইআরসিটিসি’র ওয়েবসাইটে গিয়ে সেই কাজটি করতে পারবেন।

এতদিন পর্যন্ত টিকিট কাটার পর তা বাতিল করতে হলে যাত্রীকে সংশ্লিষ্ট টিকিট কাউন্টারে বা রেলের সংরক্ষিত টিকিট বুকিং অফিসে গিয়েই করতে হত। যার ফলে যাত্রীদের অনেকটা সময় নষ্ট হত। রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, যাত্রীদের প্রয়োজনের কথা মাথায় রেখেই এই নতুনসুযোগ সুবিধা চালু করা হচ্ছে।

আইআরসিটিসি’র এই নতুন নিয়মে যাত্রীরা চাইলে সংশ্লিষ্ট টিকিট কাউন্টার, রিজার্ভেশন অফিস অথবা রেলের টিকিট বুকিং সেন্টারে গিয়ে এবার থেকে ট্রেনের টিকিট বাতিল করতে পারবেন। এক্ষেত্রে যাত্রীর মোবাইল নাম্বারটি অপরিবর্তিত থাকতে হবে। কারন টিকিট কাটার সময় যে নাম্বার দিয়ে টিকিট কনফার্মেশন করা হয়েছিল, টিকিট বাতিল করার ক্ষেত্রেও সেই একই নম্বর থেকেই যাত্রীকে টিকিট বাতিল করতে হবে।

শুধু তাই নয় যাত্রীদের টিকিট বাতিল করার বিষয়ে আইআরসিটিসি কত গুলি নিয়ম বেঁধে দিয়েছে । এই নয়া নিয়ম গুলি হল, ট্রেনের টিকিট বাতিল এবং মূল্য ফেরত পাওয়া যাবে শুধুমাত্র যে কোনও সাধারন পরিস্থিতিতে। ট্রেন ছাড়তে দেরি হলে বা ট্রেন বাতিল হলে টিকিট বাতিল হবে না বলে জানিয়েছে রেল মন্ত্রক ।

ট্রেন ছাড়ার পূর্ব নির্ধারিত সময়ের চারঘণ্টা আগে একজন যাত্রী তাঁর কনফার্ম টিকিটটি বাতিল করতে পারেন।
এছাড়াও রেল সূত্রে জানাগিয়েছে, আইআরসিটিসি ওয়েবসাইটে গিয়ে যাত্রীকে মাত্র ত্রিশ মিনিট সময় দেওয়া হবে পূর্ব নির্ধারিত ট্রেনের টিকিট বাতিল করার জন্য।

এছাড়াও যে সমস্ত রেলের কর্মচারী রয়েছেন তারাও চাইলে এবার থেকে আইআরসিটিসি’র ওয়েবসাইটে গিয়ে তাঁদের ডিউটি পাস বাতিল করতে পারবেন। কোনও রেলকর্মীর ডিউটি পাস যদি বাতিল করার সময় পর্যন্ত বৈধ থাকে, তাহলে সেটি আবার পুনরায় নবীকরণ করতে পারবেন বা টাকাও ফেরত পেতে পারেন।

রেলসূত্রে খবর, যাত্রীরা কোনও টিকিট পুরোটাই বাতিল করতে চাইলে ওই ওয়েবসাইটে গিয়ে বাতিল করতে পারবেন কিন্তু এই পদ্ধতিতে তিনি আর কোনও টাকা ফেরত পাবেন না।

আইআরসিটিসি’র ওয়েবসাইটে আরও জানানো হয়েছে, সংশ্লিষ্ট ট্রেনের টিকিট বাতিল করার পর ওই যাত্রীর জন্য সংরক্ষিত কামরাও বাতিল হয়ে যাবে তখনি।