যোধপুর: উত্তর প্রদেশের শাহজাহানপুরে এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অপরাধে যাবজ্জীবন সাজা পাওয়ার পর যোধপুর জেল থেকেই আসারামের অডিও ভাইরাল হল সোশাল সাইটে৷ যেখানে শোনা যাচ্ছে যাবজ্জীবন সাজা পাওয়ার পর জেলের ভিতর থেকে আসারাম বাপু ভক্তদের উদ্দেশ্যে প্রবচন দিচ্ছে৷ তার পাশাপাশি ওই অডিওতে তাকে বলতে শোনা যায় “শীঘ্রই জেলের বাইরে আসব৷”

জানা গিয়েছে এই অডিওটি জেলের ভিতরে থাকা অবস্থাতেই করা একটি লাইভ অডিও৷ যেখানে ফোনের মাধ্যমে ভক্তদের প্রবচন বাণী দেওয়া হয়েছে৷ আসারামের এই লাইভ বাণী তার ফেসবুক পেজ ও মোবাইল অ্যাপ ‘মঙ্গলময়’ এ কিছু সময়ের জন্য শেয়ার করা হয়৷ এরপরেই গণ্ডগোল শুরু হয়৷ সমস্যা শুরু হতেই তড়িঘড়ি সেই লাইভ অডিও সরিয়ে নেওয়া হয়৷ এই অডিওতে আসারাম জানিয়েছে খুব তাড়াতাড়ি জেল থেকে বেরিয়ে আসবে৷ শুধু তাই নয়৷ নিম্ন আদালতের এই সাজা উচ্চ আদালতে বাতিল করে দেওয়া হবে৷

জানা গিয়েছে আসারামের এই অডিও বার্তা শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রচারিত হয়েছে৷ ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওতে তাকে বলতে শোনা গিয়েছে, “এই পুরো মামলাটাই সাজানো৷ প্রথমে আমি আমার মেয়ে শিল্পিকে বাইরে আনব, তারপর শরদ কে৷ তারপর আমরা তোমাদের মাঝে চলে আসব৷”

আসারমের লাইভ অডিও প্রবচন সামনে আসার পরেই প্রশাসনের তরফে আলোড়ন পড়ে যায়৷ যোধপুর জেলের ডিআইজি বিক্রম সিং জানিয়েছেন, গতকাল আশারাম সন্ধ্যা ৬.৩০ নাগাদ জেলবন্দিদের অধিকারের ব্যবহার করে সবরমতি আশ্রমে ফোনে কথা বলেছেন৷

তিনি জানান প্রতিটি কয়েদির ১২০ টাকা জমা করে মাসে ৮০ মিনিট পর্যন্ত নিজের কোনও পরিচিতের সঙ্গে কথা বলতে পারে৷ এটা তাদের অধিকারের মধ্যে পড়ে৷ ডিআইজি বিক্রম সিং এর বক্তব্য, জেল প্রশাসন তার উপর কোনও কড়া পদক্ষেপ নিতে পারে, আশারাম ফোনে কথা বলার সময় এমন কোনও রকম আপত্তিজনক কথা বলেননি৷

তিনি আরও বলেন সতর্কতামূলকভাবে কয়েদিদের এই কথাবার্তা রেকর্ড করা হয় যাতে কোনও ভুল কথা না বলে৷ হতে পারে যখন সবরমতি আশ্রমে যখন আশারাম কথা বলছিল তখন কেউ সেটি রেকর্ড করে প্রচার করে দিয়েছে৷

কিন্তু বিতর্ক তৈরি হয়েছে অন্য জায়গাতেও৷ অডিও সম্প্রচার করার আগেই আশারামের ফেসবুক অ্যাকাউন্টেও তার আগাম খবর জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল৷ আশারামের ফেসবুকে এই অডিও দেওয়ার আগে লেখা হয় “২৭ এপ্রিলে যোধপুর জেল থেকে সন্ধে ৬.৩০ মিনিটে আসারামের অডিও লাইভ হওয়ার সম্ভাবনা আছে৷ আপনি মঙ্গলময়ে অবশ্যই শুনুন৷”

বিতর্ক তৈরি হওয়ার পরেই ওই ধর্ষক সাধুর ফেসবুকের পেজে ও তার মোবাইল অ্যাপ ‘মঙ্গলময়’ তেও আশারামের অডিও প্রবচন সরিয়ে নেওয়া হয়েছে৷ আসারামের এই অডিওতে সে বলেছে “যত বড় বাজ পড়ে তত বড় রাস্তাও তৈরি হয়৷ প্রথমে তো মেয়ে শিল্পিকে বের করব৷ তারপর ছেলে শরদকে৷ উপরে একে পর এক আদালত রয়েছে৷ কিছু লোক মিথ্যে ছড়াচ্ছে৷ আমার কাঁদার কথাটাও মিথ্যে৷” এই অডিওর শেষে শরদের আওয়াজও শোনা গিয়েছে যেখানে সে বলছে “আমি যোধপুরে ঠিক আছি৷”