কলকাতাঃ  বিয়ের মরশুম শুরু হতে চলেছে। কিন্তু বিয়ের মরশুমে শোনা কিনতে গিয়ে রীতিমত হাত পুড়ছে সাধারণ মানুষের। মাত্র ১০ গ্রাম সোনার দাম গিয়ে এক ধাক্কায় পৌঁছেছে ৩৬ হাজার টাকার কাছাকাছি। শুধু সোনা নয়, পাল্লা দিয়ে ক্রমশ বাড়ছে রুপোর দামও। যেভাবে সোনা এবং রুপোর দাম বাড়ছে তাতে এই দর রেকর্ড বলেই মনে করছেন বিক্রেতারা। বিশেষ করে বিগত বছরগুলির ক্ষেত্রে এই বছর বিশেষ করে বিয়ের মরশুমে যেভাবে সোনা এবং রুপোর দাম বাড়ছে তাতে তা রেকর্ড হিসাবেই দেখছেন অনেকে।

শুধু সোনা কিংবা রুপোর দামই বাড়ছে না। গত ১০ দিনে হলুদ ধাতুর দর কলকাতায় এক হাজার টাকারও বেশি বেড়েছে। এর মধ্যে সোনার উপর আমদানি শুল্ক বসিয়েছে মোদী সরকার। বাজেটে ২.৫ শতাংশ শুল্ক বাড়িয়েছে সরকার। যার প্রভাব ইতিমধ্যে সোনার গহনার উপর পড়েছে। ফলে মাথায় হাত আম-আদমির। বিশেষ করে বিয়ের মরশুমে সোনা এবং রুপোর বিভিন্ন জিনিস কেনার একটা চাপ থাকে। কিন্তু যেভাবে দাম বাড়ছে তাতে সাধারণ মানুষের উপর রীতিমত প্রভাব পড়ছে বলে মনে করছে বিক্রেতারা। আগামিদিনে বাজার কি হবে তা নিয়েও আশঙ্কায় ভুগছেন বিক্রেতারা।

সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত অনুযায়ী, গত ৯ জুলাই কলকাতায় পাকা সোনা, অর্থাৎ ২৪ ক্যারেট সোনার দর গিয়েছিল ৩৪ হাজার ৬৮৫ টাকা। ১৯ জুলাই ১০ গ্রাম পাকা সোনার সেই দর পৌঁছয় ৩৫ হাজার ৭৫০ টাকায়। পাকা সোনার দরের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে গয়নার জন্য ২২ ক্যারেট সোনার দরও।

গত শুক্রবার গয়না সোনার দর গিয়েছে প্রতি ১০ গ্রাম ৩৪ হাজার ৪৩০ টাকা। যদিও শনিবার বাজার বন্ধ হওয়ার সময় পাকা ও গহনা— দু’টি ক্ষেত্রেই সোনার দর কিছুটা কমেছিল। ২৪ ক্যারেটের ১০ গ্রামের দর ছিল ৩৫ হাজার ৫২৫ টাকা। হলমার্কযুক্ত ২২ ক্যারেট গয়না সোনা ছিল ১০ গ্রাম পিছু ৩৪ হাজার ২১০ টাকা।

এদিকে সোনার পাশাপাশি হু হু করে চড়ছে রুপোর দর। ইতিমধ্যেই খুচরো রূপোর কেজি ৪১ হাজার টাকা ছুঁয়েছে। অথচ দিন দশেক আগেও সেই দর ৩৭ হাজার ৮০০ থেকে ৩৭ হাজার ৯০০ টাকার মধ্যে ঘোরাঘুরি করছিল। এত অল্প সময়ের মধ্যে এতটা দামের লাফ রুপোর বাজারে হয়নি বলেই মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। পাশাপাশি তাঁরা বলছেন, পরিস্থিতি যেদিকে যাচ্ছে, তাতে রুপোর দর চড়তে পারে আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিক্রেতারা।