নয়াদিল্লি: এবারের ধনতেরাসে সোনা যেন তার জৌলুস হারাতে পারে এমনই আশংকা দানা বেধেছে৷ ইন্ডিয়া বুলিয়ান অ্যান্ড জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (আইবিজেএ)-এর জাতীয় সম্পাদক সুরেন্দ্র মেহতা সংবাদ সংস্থা আইএএলএস-কে জানিয়েছেন, প্রতি বছর ধনতেরাসের সময় ৪০ টন সোনা বিক্রি হয়ে থাকে ৷ কিন্তু এই বছর চাহিদা এতটাই দুর্বল যে বিক্রি হয়ে যেতে পারে৷

তিনি জানান, সোনার দাম এবং আমদানি শুল্ক বৃদ্ধি পাওয়ায় এই হলুদ ধাতু আমদানি কমে গিয়েছে ৷ এই সেপ্টেম্বরে সোনা আমদানি হয়েছে ২৬ টন যেখানে একবছর আগের সেপ্টেম্বরে হয়েছিল ৮১.৭১ টন প্রতি বছর৷ গত বছরের তুলনায় আমদানি কমেছে ৬৮.১৮ শতাংশ৷ বাজার বিশেষজ্ঞদের ধারণা, গত জুলাই মাসে বাজেটের সময় কেন্দ্রীয় সরকার সোনার আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১২.৫ শতাংশ করায় সোনা আমদানি গত বেশ কয়েক বছরে সর্বনিম্ন হয়েছে ৷

মেহতার মতে, তিন ধরনের চাহিদা থাকে সোনার- বিয়ের মরসুমে চাহিদা, উৎসবের জন্য চাহিদা এবং সাধারণ চাহিদা৷ সাধারণ চাহিদা বাজারে নগদের অভাবের জন্য কম রয়েছে৷ তাছাডা় সোনার দাম বাড়ায় এখন এই দিকে লগ্নি করতে চাইছে না অনেকে৷ তিনি আরও জানান, সোনার চাহিদা এই উৎসবের মরসুমে কম রয়েছে৷ আর এক বাজার বিশেষজ্ঞের মতে, বিশ্ব বাজারে সোনার দাম বৃদ্ধি পাওয়া আর একটি কারণ দেশের অভ্যন্তরে সোনার চাহিদা কমায়৷

মুম্বইতে শুক্রবারে ২২ ক্যারাট সোনার প্রতি ১০ গ্রামের মূল্য ৩৯,১৯০ টাকা এবং ২৪ ক্যারাট সোনার দাম প্রতি ১০ গ্রামে ৩৯,৩৪০ টাকা ৷ সোনারল দাম গত কয়েক মাসে বেশ কয়েক বার ৪০,০০০ কোঠায় ছিল৷ সোমবার অবশ্য দাম কিছুটা কমায় মাল্টি কমোডিটি এক্সচেঞ্জে (এমসিএক্স) ১০ গ্রামের দাম ৩৯,২৯৫ টাকায় ছিল৷ যেখানে গত বছর ৫ অক্টোবর এমসিএক্সে সোনার দাম ছিল ৩১,১৫৪টাকা ৷