পুনে: দক্ষিণ ভারতের গঙ্গা বলে সুপরিচিত গোদাবরী নদী শুকিয়ে গিয়েছে৷ নদীর গতি পথের একটি অংশ খটখটে জলহীন৷ সেখানেই ছড়িয়ে রয়েছে রাশি রাশি মাছ৷ জলের অভাবে তাদের মৃত্যু মিছিল চলেছে৷ পরিস্থিতি দেখে চমকে গিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা৷ জানা গিয়েছে, ঔরঙ্গাবাদ থেকে ৬৫ কিলোমিটার দূরে নওগাঁও এলাকায় এরকমই পরিস্থিতি৷

গরমের হল্কা বইছে দেশে৷ বিশেষ করে মধ্য ও পশ্চিম ভারতে৷ মহারাষ্ট্রের অনেক এলাকায় শুরু হয়েছে শুখা৷ তাতে শুকিয়ে গিয়েছে গোদাবরী নদী৷ ৮ হাজার মানুষের জনবসতি নওগাঁর পাশ দিয়ে বয়ে চলা নদীতে আর জল নেই৷ সেখানে পড়ে রয়েছে মাছ৷ এখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা বহু দূর থেকে পানীয় জল আনতে শুরু করেছেন৷

আরও পড়ুন : যুদ্ধজাহাজ আইএনএস বিরাটে ছুটি কাটিয়েছিল গান্ধী পরিবার : মোদী

তীরবর্তী বিভিন্ন গ্রামে দেখা দিয়েছে আকাল৷ পশু খাদ্যে পড়েছে টান৷ গোদাবরীর দুই পারে থাকা অন্তত ৯০টি গ্রামে এমন অবস্থা৷ স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, গত দু মাস ধরে জলের অভাব দেখা দিয়েছে৷ অভিযোগ, স্থানীয় প্রশাসন নির্বিকার৷ ফলে বাড়ছে ক্ষোভ৷ অনেকেই জানিয়েছেন, মহারাষ্ট্র সরকার শুখা মরসুমে খরা মোকাবিলায় পদক্ষেপ নিয়েছে জানালেও সেটা যে পরিহাস তা বলে দিচ্ছে গোদাবরী৷

ভারতের দ্বিতীয় দীর্ঘতম নদী হল গোদাবরী৷ মহারাষ্ট্রের ত্রম্বেকেশ্বর থেকে উৎপত্তি হয়ে পশ্চিম থেকে পূব অভিমুখে ১৪৬৫ কিলোমিটারের যাত্রা পথে পে মহারাষ্ট্র, তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, ছত্তিসগড়, ওডিশা ও কর্ণাটক হয়ে বঙ্গোপসাগরে পড়েছে এই নদী৷

এদিকে মৌসম ভবন জানাচ্ছে, গরম এখনও থাকবে৷ বৃষ্টির সম্ভাবনা এখনই নেই৷ তবে আবহাওয়া রিপোর্টে বলা হয়েছে, চলতি বছর স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হবে দেশে৷