পানাজি: বড়সড় সাফল্য। রেভ পার্টির ডেরা ভাঙল গোয়া পুলিশ। ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে ইতিমধ্যেই ২৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দায়ের করা হয়েছে এফআইআর। পুলিশ জানিয়েছে, ৯ লাখের বেশি টাকার মাদকদ্রব্য বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে গোপনসূত্রে খবর পেয়ে হঠাতই হানা দেয় পুলিশ। সমুদ্র সৈকতের রিসোর্ট থেকে হাতেনাতে ধরে ফেলা গিয়েছে অনেককে। আরও যারা এই ঘটনায় যুক্ত রয়েছে তাঁদের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে শুরু হয়েছে তদন্ত। গোয়ার ভাগাতোর জেলার ফ্রাঙ্গিপান্নি বিলাসে শনিবার রাতে রেভ পার্টির ডেরা ভেঙেছে পুলিশ। যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁদের মধ্যে রয়েছে বহু বিদেশি।

পুলিশ একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, “তন্নতন্ন তল্লাশি অভিযানে নারকোটিক্স ড্রাগ-কোকেন, এমডিএমএ, এক্সত্যাসি ট্যাবলেট এবং চরস বিশাল পরিমাণে উদ্ধার করা হয়েছে। যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁদের মধ্যে তিনজন বিদেশি মহিলা”।

মানুষের সুরক্ষাকে বিপদে ফেলে করোনা অতিমারির পরিস্থিতিতে পার্টি অরগানাইজ করা হয়েছিল। নারকোটিক্স ড্রাগস এন্ড সাইকোট্রিপিক সাবট্যান্স অ্যাক্ট ১৯৮৫ অনুযায়ী তাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছে। কিছুদিন আগে বড়লোক পরিবারের ছেলেমেয়েরা যখন আন্ডারগ্রাউন্ড পার্টি পরিচালনা করেছিল সে বিষয়ে করা পদক্ষেপ নিয়েছিল প্রশাসন।

প্রসঙ্গত, গোয়ায় করোনা ভাইরাসের প্রকোপে রীতিমতন তলানিতে ঠেকেছে পর্যটন শিল্প। আপাতত বন্ধ অনেক রোজগারের পথ। গোয়ার মতন জায়গায় যা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। এমন পরিস্থিতিতে কিভাবে রেভ পার্টি চলছিল সে বিষয়ে স্বাভাবিকভাবে প্রশ্ন উঠছে। ইতিমধ্যেই কৃষিকাজ এবং ফিসিংকে আরও গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। তবে পর্যটনকে কেন্দ্র করে কোনও ভাবনাই অতিমারি শেষ না হওয়া অবধি করা যাবে না।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।