নয়াদিল্লি: একটি ভিডিও ফুটেজ৷ ভোটের বাজারে সেটি এখন শোরগোল ফেলে দিয়েছে৷ ভিডিও ফুটেজে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে খুন করার হুমকি দেওয়া হয়েছে৷ আর এই হুমকি দিয়েছেন বিদ্রোহী বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর৷

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস নাও এই খবর করেছে৷ ভিডিও ফুটেজে এক বন্ধুকে তেজ বাহাদুর বলছেন, ৫০ কোটি টাকা পেলে মোদীকে খুন করবেন৷ খবরে প্রকাশ, ফুটেজটি দু’বছর পুরোন৷ টাইমস নাও দাবি করেছে, তারা ফুটেজটির সত্যতা খতিয়ে দেখেনি৷

এই নিয়ে তেজ বাহাদুর টাইমস নাওকে জানান, ভিডিওর ওই ব্যক্তিটি তিনি৷ তাঁর সঙ্গে ভিডিওতে যারা রয়েছে তারা দিল্লি পুলিশের আধিকারিক৷ সেনা থেকে বহিষ্কৃত এই জওয়ান দাবি করেন, তাঁর সঙ্গে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে৷ দু’বছর আগের একটি ভিডিও ফুটেজ ভোটের সময় সামনে এনে তাঁর চরিত্রে দাগ লাগাতে চাইছে বিজেপি৷ যবে থেকে তিনি বারাণসীতে মোদীর বিরুদ্ধে প্রার্থী হয়েছেন তবে থেকে এই ষড়যন্ত্র চলছে৷

কিছুদিন আগেও তেজ বাহাদুর দাবি করেন, মোদীর বিরুদ্ধে প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করে নিতে তাঁকে ৫০ কোটি টাকা অফার করা হয়৷ তিনি রাজি না হওয়ায় খুনের হুমকি পান৷ শুধু তাঁকে নয়, তাঁর ছেলেকেও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়৷

ভুল তথ্য দেওয়ার অভিযোগে তেজ বাহাদুরের প্রার্থী পদ বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন৷ এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন তিনি৷ নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে শীর্ষ আদালতে আবেদন জানিয়েছেন৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে বারাণসী লোকসভা কেন্দ্র থেকে তাঁকে প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করিয়েছিল সমাজবাদী পার্টি৷

২০১৭ সালে সেনাবাহিনীকে নিম্নমানের খাবার দেওয়ার অভিযোগ করে একটি ভিডিও করেন এই প্রাক্তন বিএসএফ জওয়ান৷ বিতর্কিত ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে শিরোনামে আসেন তিনি৷ জওয়ানদের খারাপ খাবার দেওয়া হয় এমন অভিযোগ তোলেন তেজ বাহাদুর৷ তারপরেই বরখাস্ত করা হয় তাঁকে৷ শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে বরখাস্ত হন তেজ বাহাদুর৷ সেই সেনাবাহিনীর প্রতি বর্তমান সরকারের ব্যর্থতার বিষয়গুলি তুলে ধরতেই ভোটে দাঁড়ান তিনি। তেজ বাহাদুর মোদীর বিরুদ্ধে দাঁড়ানোয় অস্বস্তিতে পড়ে বিজেপি৷