স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: প্রেমের আবেদন প্রত্যাখ্যান করায় ছাত্রী৷ তাই ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ছাত্রীর মুখের আকৃতি বিকৃত করতে যায় যুবক৷ ঘটনাটি ঘটেছে কালিয়াচক থানা এলাকার সুলতানগঞ্জ এলাকায়৷ অভিযুক্ত যুবক জনি শেখ৷

ওই ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ, তাদের মেয়ে কালিয়াচক সুলতানগঞ্জ কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিল৷ তবে বেশ কয়েকদিন ধরে এলাকার যুবক জনি শেখ তাদের মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়৷ কিন্তু সেই প্রস্তাব নাকচ করে তাদের মেয়ে৷ তবে অভিযোগ, এরপর তাদের মেয়ে পথে বেরোলেই ওই যুবক তাকে ক্রমাগত উত্ত্যক্ত করতে থাকে৷ এই ঘটনায় তাদের মেয়ে বারবার প্রতিবাদ করলেও কোনও সুরাহা হয়নি৷ অবশেষে ওই ছাত্রী গোটা বিষয়টি বাড়িতে জানায়৷

শনিবার সকালে টিউশনে পড়তে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরোয় ওই ছাত্রী৷ কিন্তু সেখানে আগে থেকেই হাজির ছিল অভিযুক্ত যুবক জনি শেখ৷ ওই ছাত্রী কাছে আসতেই তার পথ আটকায় যুবকটি৷ কিছু বলার আগেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছাত্রীর মুখে আঘাত করে সে৷ অভিযোগ, ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছাত্রীর নাক কেটে মুখ বিকৃত করে দেয় ওই যুবক৷

এই ঘটনায় ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসতেই পালিয়ে যায় অভিযুক্ত জনি৷ তড়িঘড়ি ওই ছাত্রীকে মালদহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছে ওই ছাত্রী৷ ইতিমধ্যেই গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে কালিয়াচক থানার পুবলইশ৷ তবে ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত যুবক জনি শেখ৷