প্যারিস: একটি সাসপেনশন ব্রিজ ভেঙে মৃত্যু হল ১৫ বছরের এক কিশোরীর। সোমবার দক্ষিণ-পশ্চিম ফ্রান্সের একটি ব্রিজ ভেঙে পড়ে। নীচে ছিল নদী। জলে পড়ে যায় একটি গাড়ি ও একটি ট্রাক।

এই ঘটনার পর চারজনকে জল থেকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। ফ্রান্সের দুই শহর মিরপোক্স-সার-টার্ন ও বেসিয়ারকে যুক্ত করেছিল এই ব্রিজ।

জানা গিয়েছে বাবা-মায়ের সঙ্গে গাড়িতে ছিল ১৫ বছরের ওই কিশোরী। ব্রিজের উপর দিয়ে গাড়িটি যাওয়ার সময়ই ব্রিজ ভেঙে নদীতে পড়ে যায়। খরস্রোতা টার্ন নদীর জলে হাবুডুবু খেতে শুরু করে সবাই। এক মহিলা কোনোক্রমে সাঁতরে পাড়ে আসতে সক্ষম হয়।

উদ্ধারকাজে পৌঁছে যায় হেলিকপ্টার। হেলিকপ্টারেই তোলা হয় ওই কিশোরীর মৃতদেহ। ৪০ জন পুলিশকর্মী সহ মোট ৬০ জনের একটি টিম উদ্ধারকাজে হাত লাগিয়েছে। এখনও নিখোঁজ কয়েকজন। ট্রাক চালক ও অন্য একটি গাড়ির চালকের কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

১৯৩০-এ তৈরি ওই ব্রিজ ১৯ টন মাল বহনে সক্ষম। এটি ছিল একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্রিজ। বহু মানুষ এই ব্রিজ ব্যবহার করতেন। স্কুল পড়ুয়ারাও পার হতেন এই ব্রিজ দিয়ে। তাই এই দুর্ঘটনা রীতিমত আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

এই ব্রিজ ৪৯২ ফুট লম্বা, ১৬ ফুট চওড়া। ২০০৩ সালে এটির রেনোভেশন হয়। নিয়মিত পরীক্ষা করা হয় বলেও জানা গিয়েছে।