স্টাফ রিপোর্টার, চুঁচুড়া: বিয়েত রাজি হচ্ছিল না প্রেমিকা। সেই কারণে তাকে গুলি করে খুন করল প্রেমিক।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হুগলী জেলার কোন্নগরে। মৃত তরুণীর নাম শুভলগ্না চক্রবর্তী। হামলাকারী প্রেমিক হল মহম্মদ সুলতান আলি।

আরও পড়ুন- পুরসভার গেষ্ট হাউসে মধুচক্রের আসর থেকে গ্রেফতার ১২

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুভলগ্নার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল সুলতানের। যদিও সাম্প্রতিককালে সেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চাইছিল ৩৩ বছরের শুভলগ্না। যা মেনে নিতে পারেনি সুলতান। এই নিয়েই শুরু হয় বিবাদ। যার কারণে প্রেমিকের হাতেই খুন হতে হল শুভলগ্নাকে।

বৃহস্পতিবার রাতের দিকে কোন্নগর অলিম্পিক মাঠের কাছে শুভলগ্নাদের বাড়িতে চড়াও হয় অভিযুক্ত মহম্মদ সুলতান আলি। বিয়ের জন্য সে চাপ দেয় শুভলগ্নাকে। রাজি না হওয়ায় শুভলগ্নাকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করেন সুলতান। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর।

সুলতানের আক্রমণে জখম হয়েছেন শুভলগ্নার বাবা তুষার চক্রবর্তী এবং মা শুভ্রা দেবী। এদিন সুলতানের সঙ্গে শুভলগ্নার সঙ্গে বচসার সময়ে তাঁরাও উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের উপরেই প্রথমে হামলা করে সুলতান। বৃদ্ধ দম্পতি লুটিয়ে পড়লে তাঁদের মেয়ে শুভলগ্নাকে গুলি করে সুলতান।

গুরুতর জখম তুষারবাবু এবং শুভ্রাদবীকে উত্তরপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভরতি করেন পড়শিরা। সন্তানহারা দম্পতির অভিযোগ, “নিজের সম্পর্কে ভুল তথ্য দিয়ে সম্পর্ক স্থাপন করেছিল সুলতান। বিষয়টি জানার পরেই সম্পর্ক রাখতে অস্বীকার করে শুভলগ্না।” যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে সুলতানের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে বাড়ির চাপেই সুলতানের থেকে দূরে সরে গিয়েছিল শুভলগ্না।

শেষ পাওয়া খবর অনুসারে, অভিযুক্ত সুলতানকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপাড়া থানার পুলিশ। স্থানীয় বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল জানিয়েছেন খুবই দুঃখজনক ঘটনা। প্রশাসন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে।

Advertisements