এবার চাকুরিজীবীদের মাস মাইনে থেকে কাটা যেতে পারে মোটা অংকের টাকা। তাই নতুন আয়কর নিয়ম অবশ্যই জেনে নিতে হবে চাকুরিজীবীদের, নইলে বড় বিপদ। কেটে নেওয়া হতে পারে প্রায় ২০ শতাংশ টিডিএস।

এ বছরের শুরুতেই জানুয়ারি মাসের ১৬ তারিখ একটি নতুন নিয়ম চালু হয়েছে। CBDT-এর তরফে এই নিয়ম জারি করা হয়েছে। নিয়মে বলা হয়েছে, যে সকল চাকুরিজীবীদের মাইনে বাৎসরিক আড়াই লক্ষ টাকার বেশি তাঁদের অবশ্যই প্যান ও আধারের তথ্য দিতে হবে নিয়োগকারী সংস্থাকে। নইলে মাইনে থেকে কুড়ি শতাংশ টিডিএস কেটে নেওয়া হবে।

টিডিএস-এর ওপর নজর রাখতে এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। পাশাপাশি এই সেগমেন্টে রেভিনিউ বৃদ্ধি করাও এর উদ্দেশ্য। এই নতুন নিয়ম চালু করার উদ্দেশ্যে ৮৬ পাতার একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

অন্যদিকে এবারের আর্থিক বাজেটের দিকে আশা করে তাকিয়ে রয়েছেন চাকুরীজীবীরা। মধ্যবিত্ত চাকুরীজীবী মানুষের জন্যে এবারের আর্থিক বাজেটে একগুচ্ছ সুবিধার কথা ঘোষণা করতে পারে সরকার। যার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ আয়কর ছাড়ের বিষয়টি।

মনে করা হচ্ছে, এবারের আর্থিক বাজেটে আয়করের ক্ষেত্রে বড়সড় ছাড়ের সম্ভাবনা রয়েছে। যা হিসাব করা হচ্ছে তাতে ৭ লক্ষ পর্যন্ত আয়ে ৫% কর ছাড় মিলতে পারে ৷ ৭-১০ লক্ষ আয়ে ১০% কর ৷ বর্তমানে ৫ লক্ষ পর্যন্ত আয় করমুক্ত৷ এখন ৫-১০ লক্ষ আয়ে ২০% কর ৷ আর ১০ লক্ষের বেশি আয়ে ৩০% কর। ফলে এই ক্ষেত্রে আয়কর ছাড়ে বড়সড় বাজেট প্রস্তাব দিতে পারেন নির্মলা সীতারমণ।

অন্যদিকে সাবান, শ্যাম্পু একাধিক নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞমহল। ২০২১ সালে এই আর্থিক বৃদ্ধির পরিমাণ ১২ শতাংশ পর্যন্ত বাড়তে পারে মনে করা হচ্ছে। এই ক্ষেত্রে জিনিসপত্রের দাম ৬ থেকে ৭ শতাংশ পর্যন্ত ও আগামী অর্থবর্ষে তা ৮ থেকে ৯ শতাংশ দেখা যাবে বলে আভাস৷

অন্যদিকে অন্তত ৩০০টি জিনিসে শুল্ক বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে খেলনা, আসবাব, জুতো, কাগজ, রবার ইত্যাদি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এইভাবে শুল্ক বাড়াও হলে ক্ষুদ্র শিল্প বৃদ্ধি পাবে, চাকরির সুযোগ বাড়বে ও রেভিনিউ উঠে আসবে।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।