নয়াদিল্লি: প্রতিরক্ষামন্ত্রক থেকে চুরি গিয়েছে রাফায়েল নথি৷ সুপ্রিম কোর্টে খোদ মোদী সরকারের এই চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি বিরোধীদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়েছে৷ বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলন করে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে নয়া স্লোগান তোলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ রাহুল জানান, যেভাবে রাফায়েল নথি চুরি গিয়েছে তারপর গায়েব হো গয়া স্লোগানটাই সরকারের সঙ্গে মানানসই৷

রাফায়েল নিয়ে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়িয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘‘সরকার জানিয়েছে (রাফায়েল) নথি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না৷ তার মানে সেই নথি খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল৷ সেই নথিতে বলা ছিল প্রধানমন্ত্রী মোদী রাফায়েল নিয়ে সমান্তরাল আলোচনা চালাচ্ছিলেন৷ যারা নথি চুরি করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা অবশ্যই নেওয়া হোক৷ তাহলে সমান্তরাল আলোচনা চালানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর অফিসের বিরুদ্ধে তদন্ত হোক৷’’

রাহুল আরও জানান, প্রধানমন্ত্রী মোদী রাফায়েল চুক্তি নিয়ে বাইপাস সার্জারি চালিয়েছেন৷ অনিল আম্বানিকে সুবিধা পাইয়ে দিতে রাফায়েল কিনতে এত বিলম্ব করা হয়েছে৷ তাঁর প্রশ্ন, প্রধানমন্ত্রী যদি দোষী না হন তাহলে তদন্তের নির্দেশ দিচ্ছেন না কেন? মোদীকে আক্রমণ করে রাহুল বলেন, ‘‘ওই নথিতে লেখা ছিল রাফায়েলের দাম বাড়ানো হয়েছিল৷ প্রতিরক্ষামন্ত্রক থেকে বলা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর অফিস সমান্তরাল আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে৷ তারা এই অভিযোগ তুলল কেন? নিশ্চয়ই কোনও কারণ আছে৷’’

বুধবার রাফায়েল মামলার শুনানির সময় অ্যার্টনি জেনারেল সুপ্রিম কোর্টে বোমা ফাটান৷ বলেন, রাফায়েল যুদ্ধবিমান নথি প্রতিরক্ষামন্ত্রক থেকে চুরি গিয়েছে৷ সরকারের এই স্বীকারোক্তির পর রাফায়েল মামলা নতুন মোড় নেয়৷

তারপরই সরকারের এই স্বীকারোক্তিকে কাজে লাগান রাহুল৷ জানান, চৌকিদার চোর হ্যায় এটা প্রমাণিত হল৷ ট্যুইট করে লেখেন, রাফায়েল দুর্নীতির শুরু ও শেষ প্রধানমন্ত্রীকে দিয়েই৷ সরকার বলছে নথি চুরি গিয়েছে৷ আসলে দুর্নীতির প্রমাণ নষ্ট করে দিয়েছে৷ কারণ ফাইলটি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ক্ষতিকর ছিল৷