নয়াদিল্লি: ব্যাট হাতে ভারতীয় দলকে অনেক ম্যাচ জিতিয়েছেন৷ ভারতের দু-দু’টি বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য ছিলেন তিনি৷ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অসামান্য সাফল্যের জন্য পদ্ম পুরস্কারে সম্মনিত হলেন গৌতম গম্ভীর৷ শনিবার রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের হাত থেকে পদ্ম পুরস্কার নিলেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন বাঁ-হাতি ওপেনার৷

গত ডিসেম্বরে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন গম্ভীরকে৷ তবে বাইশ গজকে গুডবাই জানানোর আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০ হাজার রান (১০,৩২৪) রান পূর্ণ করেছেন দিল্লির এই ক্রিকেটার৷ দেশের হয়ে ৫৮টি টেস্ট, ১৪৭টি ওয়ান ডে এবং ৩৭টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন গম্ভীর৷ ২০০৭ টি-২০ বিশ্বকাপ এবং ২০১১ ওয়ান ডে বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন দিল্লির এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান৷ দু’টি বিশ্বকাপ ফাইনালেই গম্ভীরের ব্যাটই ভারতকে লক্ষ্যে পৌঁছতে সাহায্য করে৷

রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পদ্ম পুরস্কার নেওয়ার পর গম্ভীর বলেন, ‘এই পুরস্কার ভারতীয় ক্রিকেটের সকল সমর্থক এবং আমার সমালোচকদের জন্য৷ আমার ক্রিকেট কেরিয়ারে এদের দারুণ অবদান ছিল৷’ ৩৭ বছরের দিল্লির এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানের আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়েছিল ২০০৩ সালে৷ জাতীয় দলের পাশাপাশি নাইটদের হয়েও আইপিএল দারুণ পারফর্ম করেছেন৷ প্রাক্তন নাইট অধিনায়কের হাত ধরে দু’বার আইপিএল ট্রফি (২০১২ ও ২০১৪) জিতেছে কেকেআর৷

গম্ভীরের পাশাপাশি এদিন রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পদ্ম পুরস্কার নেন ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী৷ চলতি মাসেই এএফসি এশিয়ান কাপে ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন দিল্লির এই ফুটবলার৷ দেশের ষষ্ঠ ফুটবলার হিসেবে এই পুরস্কার পেলেন ছেত্রী৷ কয়েক মাস আগে আন্তর্জাতিক গোলে লিওনেল মেসিকে পিছনে ফেলেছেন ভারত অধিনায়ক৷ তাঁর আগে রয়েছেন কেবলমাত্র ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো৷ ছেত্রীর আন্তর্জাতিক ফুটবল কেরিয়ার অত্যন্ত উজ্জ্বল৷ তিনিট নেহেরু কাপ জয় (২০০৭, ২০০৯, ২০১২) এবং এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপ (২০১২) ও দু’টি সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ (২০১১ ও ২০১৬)৷