মাদ্রিদ: ইউরোপিয়ান ফুটবলে যে ক্লাব থেকে পাদপ্রদীপের আলোয় এসেছিলেন পুনরায় সেই ক্লাবে ফিরে যাওয়ার খুব কাছাকাছি গ্যারেথ বেল। তবে পুরনো ক্লাবে ফিরে যাওয়ার পথে বেলের বাধা বর্তমান ক্লাবের সঙ্গে তাঁর জটিল চুক্তি। ওয়েলস তারকার এজেন্ট জোনাথন বার্নেত জানিয়েছেন, ‘চুক্তি চূড়ান্ত হওয়ার খুব কাছাকাছি কিন্তু চূড়ান্ত নয়।’

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরুতেই রিয়াল মাদ্রিদ ম্যানেজার জিনেদিন জিদানের বিরুদ্ধে তোপ দেগে প্রিমিয়র লিগে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বেল। শোনা যাচ্ছিল পুরনো ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পারের পাশাপাশি বেলের কাছে অফার রয়েছে লাল ম্যাঞ্চেস্টারেরও। তবে জোসে মোরিনহো প্রশিক্ষণাধীন স্পারস ওয়েলস তারকাকে দলে নিতে এখন অনেক যোজন এগিয়ে। কিন্তু যেহেতু রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে তাঁর দু’বছরের চুক্তি এখনও বাকি রয়েছে, তাই কিছুটা সমস্যা দেখা দিয়েছে। আপাতত রিয়াল থেকে সাপ্তাহিক ৬ লক্ষ পাউন্ড পারিশ্রমিক পেয়ে থাকেন বেল।

স্বাভাবিকভাবেই সময়ের আগে লস ব্ল্যাঙ্কোস শিবির ছেড়ে বেলের বেরিয়ে আসাটা খুব একটা সহজ বলে মনে হচ্ছে না। তবে বেলের সঙ্গে কোচের বনিবনা সেই অর্থে না থাকায় রিয়াল খুবে একটা আপত্তি করবে বলেও মনে হয় না। সেক্ষেত্রে ট্রান্সফার ফি হিসেবে স্প্যানিশ জায়ান্টরা ওয়েলস তারকার জন্য কত টাকা দাবি করে, এখন সেটাই দেখার। তবে বেলের এজেন্ট আশাবাদী বেল যেহেতু স্পেনের ক্লাবে ম্যানেজারের বাদের খাতায় তাই দলবদলে খুব একটা সমস্যা হবে না।

উল্লেখ্য, ২০১৩ ইংলিশ প্রিমিয়র লিগ ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পার থেকে ৮৫ মিলিয়ন পাউন্ড ট্রান্সফার-ফি দিয়ে বেলকে দলে নিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। লস ব্ল্যাঙ্কোস জার্সি গায়ে ৪টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, জোড়া লা-লিগা জয়ী ফুটবলারটি বরাবরই জিনেদিন জিদানের দলে ব্রাত্য থেকেছেন। এমতাবস্থায় ক্লাব ছাড়তে চাইলেও এ ব্যাপারে কোনওরকম সহযোগীতাও তিনি পাচ্ছেন না ক্লাবের তরফ থেকে, চলতি মাসের শুরুতে অভিযোগ এনেছিলেন প্রাক্তন টটেনহ্যাম তারকা। ২০১৯-২০ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোয় ম্যান সিটির বিরুদ্ধে দ্বিতীয় লেগে মাঠে নামতে অস্বীকার করেন ওয়েলস উইঙ্গার। যা নিয়ে তাঁর উপর আরও চটেছেন জিজৌ। সবমিলিয়ে যেনতেন প্রকারে মাদ্রিদ থেকে ছুটি চেয়ে স্কাই স্পোর্টসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সরব হয়েছিলেন বেল।

গত মরশুমের শুরুতেও চিনের সুপার লিগের ক্লাব জিয়াংসু সুনিংয়ে ওয়েলস তারকার যোগদান প্রায় নিশ্চিত ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে চিনের ক্লাবের সঙ্গে সেই চুক্তিতে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় রিয়াল মাদ্রিদ। সেই হতাশা এখনও ভুলতে পারেন না তিনি। স্কাই স্পোর্টসকে সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে তাই বর্তমান ক্লাবের থেকে সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজেছিলেন দক্ষ উইঙ্গারটি। বেল বলেছিলেন, ‘আমি গতবছরেই ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলাম। কিন্তু ওরা আমায় শেষ মুহূর্তে আটকে দিয়েছিল। এর কারণ কী? আমি জানতে চাই।’

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।