লন্ডন: চলতি বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শেষ আটে উঠেছিলেন গারবিন মুগুরুজা৷গতবছর জিতেছিলেন ফরাসি ওপেন৷স্পেনের বছর তেইশের কন্যা সার্কিটে নিজের জাত চিনিয়েছেন৷শনিবার আরও একবার বুঝিয়ে দিলেন তিনি আগামীর তারকা৷অল ইংল্যান্ড ক্লাবে ফাইনালে উড়িয়ে দিলেন সেরেনা উইলিয়ামসকে৷এক ঘণ্টা ১৭ মিনিটের লড়াইয়ে মুগুরুজা হারালেন সেরেনাকে৷স্প্যানিশ নাগরিকের পক্ষে ফল ৭-৫, ৬-০৷কেরিয়ারে দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতলেন তিনি৷

গত বৃহস্পতিবার ম্যাগডেলেনা রাইবারিকোভাকে উড়িয়ে দিয়ে উইম্বলডনে মহিলা সিঙ্গলসের ফাইনালের টিকিট কেটেছিলেন মুগুরুজা৷সেন্টার কোর্টে স্লোভাকিয়ার অবাছাই খেলোয়াড়কে স্ট্রেট সেটে (৬-১,৬-১) হারিয়ে দিয়েছিলেন৷অন্যদিকে ওদিনই দীর্ঘ আট বছর পর ফের উইম্বলডন ফাইনালে উঠেছিলেন ভেনাস৷ব্রিটিশ প্রতিদ্বন্দ্বী জোহানা কোন্তাকে স্ট্রেট সেটে (৬-৪,৬-২) হারান পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন এই ৩৭ বছরের মার্কিনি৷এবার শুরু থেকেই ভেনাসকে দুর্দান্ত ছন্দে ছিলেন৷কিন্তু ফাইনালে লড়তে পারলেন না৷স্প্যানিশই এক তরফা খেললেন৷

ম্যাচের পর মুগুরুজার খেলার তারিফ করলেন সেরেনা৷বলছেন,‘ খুব ভালো খেলেছে ও৷সুন্দর৷’ অন্যদিকে মুগুরুজা জানান,‘ সেরেনা অসাধারণ খেলোয়াড়৷আমি ওর খেলা দেখে বড় হয়েছি৷সেরেনার সঙ্গে ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতা অনবদ্য৷আমি অবশ্যই নার্ভাস ছিলাম৷আমি স্বপ্ন দেখতাম এই মঞ্চে খেলার৷প্রথম সেটটা খুব কঠিন ছিল৷আমাদের দু’জনেরই অনেক সুযোগ ছিল৷সেরেনা দু’বছর আগে বলেছিল আমি একদিন জিতব৷আজ আমি এখানে৷’

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।