ছবি: প্রতীকী

স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: গাড়ি বোঝাই মুরগি৷ দেখে সন্দেহ হওয়ার কোনও কারণ থাকতে পারে না৷ কিন্তু গোপন সূত্রে খবর পেয়ে আলিপুরদুয়ার জেলার হাসিমারায় সেই মুরগি বোঝাই গাড়িতে তল্লাশি চালায় এনসিবি ও এসএসবি’র আধিকারিকরা৷ প্রথমে সন্ধান না মিললেও পরে ওই গাড়ির ছাদ থেকে উদ্ধার হয় ৩১৯ কিলো গাঁজা৷ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে এক ব্যক্তিকে৷

আরও পড়ুন: কমেডির মোড়কে গুরুগম্ভীর বার্তা দেবে ‘হইচই আনলিমিটেড’

এনসিবি সূত্রে জানা গিয়েছে, মনিপুরের সেনাপতি এলাকা থেকে গাড়ির ছাদে লোড করে শিলিগুড়িতে আনা হচ্ছিল গাঁজা। তারপর ওই গাঁজা পাচার করে দেওয়া হত৷ গোপন সূত্রে এনসিবি জানতে পারে একটি গাড়িতে ওই পথেই পাচারের জন্য গাঁজা আনা হচ্ছে৷ গাঁজা উদ্ধারে হানা দেয় এনসিবি ও এসএসবি’র ১৭ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের জওয়ানরা৷ উদ্ধার হয় গাঁজা৷ মুরগি বোঝাই গাড়ির ছাদে ৩১টি প্যাকেটে ছিল ৩১৯ কিলো গাঁজা৷ প্রতি প্যাকেটে ১০ কিলো ৩০০ গ্রাম করে গাঁজা ভরা ছিল৷ উদ্ধার হওয়া গাঁজার আনুমানিক বাজার মূল্য দশ লক্ষেরও বেশি৷

আরও পড়ুন: BREAKING- বাস-ট্যাংকার সংঘর্ষে নিহত ২০

ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আসামের বাসিন্দা নরেন দত্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ জানা গিয়েছে, এর আগেও গাঁজা পাচারের অভিযোগে অসম পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছিল৷ মাত্র তিন মাস আগেও ছাড়া পেয়েছে নরেন দত্ত৷ কিন্তু হুঁশ ফেরেনি তার৷ ধৃতকে রবিবার জলপাইগুড়ি জেলা দায়রা আদালতের স্পেশাল কোর্টে পেশ করা হয় অভিযুক্তকে৷