গঙ্গাসাগর : করোনাকালে এবার গঙ্গাসাগর মেলা। অন্য বছরগুলিতে ইতিমধ্যেই লক্ষ-লক্ষ পুণ্যার্থীর সমাগম হতো সাগরমেলা চত্বরে। বাবুঘাটের শিবিরগুলিতে সাধু-সন্ন্যাসীদের উপচে পড়া ভিড় আজ নেই। ইতিমধ্যেই ভিন-রাজ্য থেকে যাঁরা এসেছেন অনেকেই পৌঁছেছেন গন্তব্যে। তবে অন্যবারের তুলনায় এবার পুণ্যার্থী নেই বললেই চলে।

এবার অনলাইনে দেখানো হবে গঙ্গাসাগর মেলা। হাইকোর্টের পরামর্শ মতো থাকবে ই-স্নানের ব্যবস্থাও। করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই এবার করোনাকালে ভিড় এড়াতে সাগর মেলা অনলাইনে দেখার ব্যবস্থা করছে রাজ্য সরকার। দেশের যে কোনও প্রান্ত থেকে অনলাইনে অর্ডার করা যাবে গঙ্গাসাগরের জল। গঙ্গাসাগারের পবিত্র জল ও প্রসাদ বাড়ি বসেই পেয়ে যাবেন পুণ্যার্থীরা।

আগামিকাল অর্থাৎ ১৪ জানুয়ারি থেকে এবছর গঙ্গাসাগর মেলা শুরু। ইতিমধ্যেই সেখানে পৌঁছে গিয়েছেন বহু পুণ্যার্থী। অতিমারীর পরিস্থিতিতে বিশাল জমায়েত নিয়ে চিন্তায় প্রশাসন। করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে তাই এবার ব্যাপক তৎপরতা নেওয়া হয়েছে। পুণ্যার্থীদের জন্য একগুচ্ছ বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। সব পুণ্যার্থীদের মাস্ক পরা ও স্যানিটাইজার ব্যবহার করার আর্জি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এরই পাশাপাশি প্রতি বছরের মতো গঙ্গাসাগর মেলা উপলক্ষে মেলা-প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা ব্যবস্থা দৃঢ় করা হয়েছে। গঙ্গাসাগর মেলার বিভিন্ন প্রান্তে ব্যারিকেড বসানো হয়েছে। সিসিটিভি ক্যামেরা, ড্রোনে সাগরমেলা প্রাঙ্গণে নজরদারি চালানো হচ্ছে৷

গঙ্গাসাগর মেলায় ঢোকার পথগুলিতে মেডিক্যাল সক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে৷ এছাড়াও মেলা চত্বরে করোনা আক্রান্তদের জন্য হাসপাতালের ব্যবস্থা থেকে শুরু করে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মেলা-প্রাঙ্গণে চিকিৎসক, নার্স-সহ স্বাস্থ্যকর্মীদের রাখা হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।