শংকর দাস, বালুরঘাট: মশাবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণে নতুন উদ্যোগ নিয়ে পথে নামলেন দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুরের পুরপ্রধান।

শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডের নালা-নর্দমায় জন্ম নেওয়া মশক বংশ ধংসে কামান দাগার পাশপাশি নিজে হাতে এবার লার্ভা ভক্ষণকারী গাপ্পি মাছ ছেড়ে দিলেন তিনি৷ পুরপ্রধান প্রশান্ত মিত্রের নেতৃত্বে অন্যান্য কাউন্সিলররাও অংশ নেন।

আরও পড়ুন: দু’দিনের বৃষ্টিতে জলমগ্ন বারাকপুর

ডেঙ্গু-সহ মশাবাহিত সমস্ত রোগ প্রতিরোধে গঙ্গারামপুর শহরের বিভিন্ন জলাশয় ও নর্দমায় বৃহস্পতিবার কয়েক হাজার গাপ্পি মাছের চারা ছাড়া হয়েছে পুরসভার উদ্যোগে। এ বিষয়ে পুরপিতা প্রশান্ত মিত্র জানিয়েছেন যে এবছর ডেঙ্গু-সহ মশাবাহিত বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধে তাঁরা আগাম সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা হিসেবে তিরিশ হাজার গাপ্পি মাছের চারা ছেড়েছেন। যার উদ্দেশ্য হল শহরের কোথাও মশার লার্ভা জন্মাতে না দেওয়া।

আরও পড়ুন: ভয়াবহ লুঠপাট পানিহাটিতে

এই গাপ্পি মাছ খুব চটপট মশার লার্ভা খেয়ে ফেলতে পারে এবং নোংরা জলেও এরা বংশবৃদ্ধি করে বেঁচে থাকে। গাপ্পির চারা বাদেও মশা নিধনে তেল ধোঁওয়া ও ব্লিচিং পাউডারও ছড়ানোর কাজ চলছে গঙ্গারামপুরে।

আরও পড়ুন: শিক্ষার পরিকাঠামো বাড়ানোর দাবিতে বিক্ষোভ