মুম্বই: বলি মহলে আবার মিটু অভিযোগ। এবার অভিযুক্ত স্বনামধন্য কোরিওগ্রাফার গণেশ আচার্য। ওই মহিলা মহারাষ্ট্র মহিলা কমিশন এবং আম্বোলি পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ করেছেন কোরিওগ্রাফারের বিরুদ্ধে।

ওই মহিলা অভিযোগ করেছেন, তাঁকে জোর করে প্রাপ্ত বয়স্কদের ছবি দেখতে বাধ্য করেছেন গণেশ। পাশাপাশি ওই মহিলার থেকে অর্জিত টাকার থেকে কমিশন দাবি করেছেন বলেও জানিয়েছেন।

এর আগে বলিউডে প্রথম মিটু ঝড় এসেছিল অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তর হাত ধরে। তাঁর এই অভিযোগের তিরে বিদ্ধ হয়েছিলেন অভিনেতা নানা পটেকর ও কোরিওগ্রাফার গণেশ আচার্য। তারপরে একের পর এক অভিযোগে সামনে আসতে থাকে বলি জগতের অন্ধকার দিক। নতুন বছরের শুরুতে আবারও এই জাতীয় অভিযোগ সামনে আসাতে প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়ে বলি জগত।

৩৩ বছর বয়সি ওই মহিলা জানিয়েছেন ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন কোরিওগ্রাফারস অ্যাসোসিয়েশনের জেনারেল সেক্রেটারি হওয়ার পর থেকেই ওই মহিলাকে নানা ভাবে হেনস্থা করতেন। প্রায়শই অফিসে ডেকে প্রাপ্ত বয়স্কদের ছবি দেখতে বাধ্য করতেন। এ নিয়ে তাঁর সঙ্গে সমস্যা হয়েছিল বলেও জানিয়েছেন।

পাশাপাশি ওই মহিলা জানিয়েছেন প্রায় এক লক্ষ টাকা অ্যাসোসিয়েশনের মেম্বারশিপ চার্জ দেওয়ার পরেও তার সদস্যপদ বাতিল করে দেওয়া হয়েছিল। তা নিয়ে জিজ্ঞেস করাতে গণেশ উত্তেজিত হয়ে তাঁকে অপমান করেছিলেন বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। আর তারপরেই তিনি বাধ্য হয়ে থানাতে গিয়ে অভিযোগ জানান।

এর আগে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছিলেন বর্ষীয়ান কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করে তাঁর বেশ কয়েকজন ছাত্রীর সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করার অভিযোগ জানিয়েছিলেন তিনি।