নয়াদিল্লি: হত্যকারী গডসের কারণেই জনপ্রিয় হয়েছেন মহাত্মা গান্ধী। এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন বিজেপি বিধায়ক। যা ঘিরে নতুন মোড় নিল গান্ধী এবং গডসে নিয়ে চলা বিতর্ক।

অভিযুক্ত বিধায়ক দিল্লি বিধানসভার সদস্য। তাঁর নাম কপিল মিশ্র। টুইটারে একটি পোস্টে তিনি লেখেন, “গডসে যদি গান্ধীজিকে না মারত, তাহলে বাপু দেশে এতটা মহান এবং বড় হতে পারতেন না। বাপুর নামে যে ব্যবসা চলছে তাও চলত না।”

একই সঙ্গে বিজেপি বিধায়ক কপিল মিশ্র আরও লিখেছেন যে নকল গান্ধী হয়ে যাঁরা দেশ চালাচ্ছে, তাঁরাও সেটা করতে পারতেন না। এই হত্যাই বাপুকে মহান বানিয়েছে, আর সে কারণে এই কাজ হয়েছিল সেই ভাবনাটাকে চাপা দিয়েছে। জীবনের শেষদিকে এসে বাপু নিজেকে পাকিস্তান এবং পাকিস্তানি ভাবনার প্রতি সমর্পণ করেছিলেন। নিজের অহিংসার সিদ্ধান্তকে মহান বানানোর একটি লোভ তাঁর চোখ বেঁধে দিয়েছিল।

যদিও এখানেই থেমে থাকেননি বিজেপি বিধায়ক। তিনি আরও লিখেছেন, “হত্যার কারণেই বাপুর বিরুদ্ধে কোনও কথা বলা দেশে অপরাধ। বেঁচে থাকলে যে পথে তিনি হেঁটেছেন, সেটা বেশিদিন সাধারণ মানুষের মধ্যে জনপ্রিয় হত না। এখন যেমন গডসের বিচারধারা নিয়ে আলোচনা করতে মুশকিল হয়, তখন বাপুর চিন্তাধারা নিয়ে আলোচনা করতে মুশকিল হত।”

খুব স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনা ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর অসম্মানসূচক মন্তব্যের কারণে বিতর্ক শুরু হয়েছে গত কয়েকদিন ধরে। যার সূত্রপাত ভোপাল লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সাধ্বী প্রজ্ঞার মন্তব্য ঘিরে। তিনি নাথুরাম গডসেকে মহান দেশপ্রেমী বলে মন্তব্য করেন। যদিও দল প্রজ্ঞার মন্তব্যকে মান্যতা দেয়নি। এরই মাঝে প্রকাশ্যে এসেছে কপিল মিশ্রর ট্যুইট।