নয়াদিল্লি: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় আমেরিকাকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথমে কিছুটা ক্ষুব্ধ হলেও রাতারাতি ভারতের থেকে ওষুধ পেয়ে আপ্লুত ট্রাম্প, সেই মর্মে ধন্যবাদ জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদীকে। এবার ডোনাল্ড ট্রাম্পের সেই সুরেই সুর মেলালেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী ট্যুইট করে লিখেছেন, “আমি প্রেসিডেন্ট ডোলান্ড ট্রাম্পের সঙ্গে পুরোপুরি একমত। এইরকম সময়েই বন্ধুদের কাছে আনে। ভারত-আমেরিকা সম্পর্ক এখন সবচেয়ে শক্তিশালী। করোনা ভাইরাসের মানবজাতির এই লড়াইয়ে ভারত সম্ভাব্য সবকিছু ভারত করবে, পাশে দাঁড়াবে”।

ভারত-আমেরিকার বন্ধুত্বে এইটাই সবচেয়ে ভালো সময় বলেও উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। একসঙ্গে এই লড়াই একসঙ্গে জিততে অঙ্গীকারবদ্ধ ভারত-আমেরিকা।

মোদী ম্যাজিকের কামালেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট সুর বদল হয়েছে রাতারাতি। যেখানে দু’দিন আগেই বদলা নেওয়ার সুর শোনা গিয়েছিল সেখানেই আবার খুশি হয়েছেন প্রেসিডেন্ট।

বুধবার রাতে ট্যুইটারে তিনি ভারতকে ধন্যবাদ জানিয়ে লিখেছেন, “কঠিন সময়ে বন্ধুদের সহযোগিতা বেশি করে দরকার হয়। হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য ভারত এবং ভারতবাসীকে ধন্যবাদ। কখনও ভুলব না। ধন্যবাদ নরেন্দ্র মোদী। আপনার নেতৃত্ব শুধুই ভারতের নয়, গোটা মানবজাতির”।

হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন কসিকলোর নামে ম্যালেরিয়ার ওই ওষুধের ২৯ মিলিয়ন ডোজ ইতিমধ্যেই রওনা হয়েছে আমেরিকার উদ্দেশ্যে। গুজরাত থেকে জাহাজে করে পাঠানো হচ্ছে সেই ওষুধ।

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে হাইড্রোকুইনন নামে ম্যালেরিয়ার ওষুধ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় বিশেষ কার্যকর হচ্ছে। এরপরই গত ২৫ মার্চ নিঃশব্দে ওই ওষুধের রফতানিতে বিধিনিষেধ আরোপ করে কেন্দ্রীয় সরকার। তবে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার অনুরোধ রাখতেই বিধিনিষেধ তুলে নেয় ভারত। শুধু আমেরিকা নয় ব্রাজিল সহ একাধিক দেশ এই মুহূর্তে ওই ওষুধের জন্য ভারতের দিকে তাকিয়ে আছে।