রোম: অবিশ্বাস্যকর ঘটনা! এবার ইতালির আল্পস পর্বতের প্রত্যন্ত এক অঞ্চলে প্রায় ৪০০ বছরের পুরোনো ছাগলের হিমায়িত দেহাবশেষের সন্ধান মিলল।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এটি ৪০০ বছরের পুরোনো ছাগলের দেহের অবশিষ্টাংশ। বিজ্ঞানী হারম্যান এবং ওবারলেচনার জানিয়েছেন, প্রাণীটির দেহের অর্ধেকাংশ বরফের ভিতর থেকে বেরিয়ে এসেছে এবং তার ত্বক,চামড়া সম্পূর্ণ চুলহীন হয়ে গিয়েছে।

এটি সন্ধানের আগে বিজ্ঞানী ওবারলেচনার আল্পস পাহাড়ে প্রায় ছয় ঘন্টা ভ্রমণ করেছিলেন। এছাড়াও সেনা হেলিকপ্টারের নকশাকৃত একটি বিশেষ বিমানে করে ওই ছাগলের মৃতদেহটি নিয়ে গিয়ে ছিলেন।

জানা গিয়েছে, ১৯৯১ সালে ইতালীয় আল্পসে হাইকারদের দ্বারা পাওয়া ৫,৩০০ বছর বয়সী ‘আইসম্যান’, ওটজি সহ অন্যান্য তথাকথিত ‘আইস মমিগুলির সংরক্ষণের কৌশলকে আরও উন্নত করার জন্য বিজ্ঞানীরা এখন চমোইস নামে পরিচিত এই প্রাণীটির পরীক্ষা নিরীক্ষা করবেন।

চ্যাম্পিয়ন স্কাইর ওবারলেচনার ইতালীয়-অস্ট্রিয়ান সীমান্তের নিকটবর্তী দক্ষিণ টাইরোলের প্রত্যন্ত অঞ্চলে যখন তিনি এই অবশেষের খোঁজ করেছিলেন, প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন এটি কেবলমাত্র একটি অন্যরকম শব, যা ভাবা অস্বাভাবিক ছিল না।

তবে এটির বিশদ পরীক্ষা নিরীক্ষার পর ছাগলের মতো দেখতে এই ‘চমোইস’ প্রাণীর উদ্ভাবন করা হয়েছে। যদিও এগুলি ইউরোপ মহাদেশের বিভিন্ন দেশে এখনও দেখা যায়। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যেভাবে বিশ্ব উষ্ণায়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রয়েছে তাতে এ জাতীয় প্রাণীর দেহাবশেষ ভবিষ্যতে আরও পাওয়া যাবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।