নিউইয়র্ক: এক মাসও হয়নি নরেন্দ্র মোদীর কড়া সমালোচনা করেছিল টাইমস পত্রিকা৷ এবার সেই পত্রিকার মুখেই মোদীর গুণগান৷ কভার পেজে মোদীর মুখ দেখিয়ে তাঁকে বলা হয়েছিল ডিভাইডার ইন চিফ৷ অর্থাৎ দেশভাগের দায়িত্বে রয়েছেন মোদী৷ প্রাবন্ধিক অতীশ তাহিরের লেখায় মোদীর সম্পর্কে দ্বিধার সুরই জোরালো ছিল৷ সেই প্রবন্ধকে ভুল প্রমাণিত করে লোকসভা ভোটে অভাবনীয় সাফল্য এসেছে বিজেপির ঘরে৷

পালে হাওয়া লাগিয়ে বিজেপির নৌকা এখন এগোচ্ছে দ্বিতীয় মোদী সরকার গড়ার দিকে৷ সেই দিকে নজর রেখেই ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেল আন্তর্জাতিক পত্রিকা টাইম ম্যাগাজিন৷ লোকসভা নির্বাচনে ফল বেরোনোর পর এই প্রথম সেই সম্পর্কে নিজেদের মতামত জানিয়েছে টাইম৷ তাঁদের প্রকাশিত প্রতিবেদনে মোদীকে ভারতের ঐক্যের স্থপতি বা কারিগর বলে উল্লেখ করা হয়েছে৷

আরও পড়ুন : Breaking News: মন্ত্রীত্ব থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত, মোদীকে চিঠি জেটলির

টাইম ম্যাগাজিন বলেছে, ভারতের আর কোনও প্রধানমন্ত্রী এভাবে এক সূত্রে ভারতকে বাঁধতে পারেননি৷ ২৮শে মে এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে৷ আপাতত সমালোচনা ভুলে মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ টাইম ম্যাগাজিন৷ ২০১৪ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত মোদীর উত্থান ও তাঁর ক্যারিশমা নিয়ে পর্যালোচনা করেছে ম্যাগাজিনটি৷

এর আগে, শুধু টাইমই নয়, গার্ডিয়ান পত্রিকাও মোদীর সমালোচনা শুরু করেছিল৷ ২০১৯ সালে মোদী জিতে ক্ষমতায় ফিরলে, দেশের ভবিষ্যত অন্ধকার বলে বর্ণনা করা হয়েছিল৷ এই প্রতিবেদনটি লিখেছিলেন কপিল কমিরেড্ডি। যদিও লোকসভা নির্বাচনের ফল সব হিসেব নিকেশ উলটে দিয়েছে৷ সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতায় ক্ষমতায় ফিরেছেন মোদী৷ ৩০শে মে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠিত হবে দ্বিতীয় মোদী সরকার৷

টাইমের আগের প্রতিবেদন শুরু হয়েছিল “Of the great democracies to fall to populism, India was the first”, এই লাইনটি দিয়ে৷ অথচ মঙ্গলবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা হয়েছে মোদী গোটা ভারতকে এক করতে বদ্ধপরিকর, সেই কাজটা তিনি নির্বাচনের মাধ্যমেই প্রমাণ করেছেন৷ যেটা ভারতের স্বাধীনতার পরে কোনও নেতাই একক ক্যারিশমায় করে উঠতে পারেননি৷

এদিন মার্কিন নিবাসী অনাবাসী ভারতীয়দের মধ্যে দেশের লোকসভা ভোট নিয়ে একটি সমীক্ষাও চালান হয়৷ এই সমীক্ষা চালায় যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংস্থা public and international policy platform Foundation for India and Indian Diaspora Studies (FIIDS)৷ সেখানেই দেখা যাচ্ছে মোদী ফের ক্ষমতায় ফেরায় খুশি অনাবাসীরা৷ সমর্থনের সংখ্যাটা প্রমাণ করে মোদীর জনপ্রিয়তা৷

সমীক্ষা বলছে, ভারত ছাড়িয়ে বিদেশেও বাড়বাড়ন্ত মোদীর সমর্থন৷ মার্কিন নিবাসী অনাবাসী প্রায় ৯৪ শতাংশ ভারতীয়ই মনে করেন মোদীর হাতেই সুরক্ষিত দেশের পরিচালন ভার৷