ফরাসি: বিশ্বজুড়ে মহামারি আকার নেওয়া করোনাভাইরাসের জন্য এবার পিছিয়ে গেল ফরাসি ওপেন৷ প্রায় চার মাস পিছিয়ে দেওয়া হল মরশুমের দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম৷ মঙ্গলবারই রোলাঁ গারো স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেন৷

প্যারিসে ক্লে-কোর্টে মরশুমের তৃতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম শুরু হওয়ার কথা ছিল ২৪ মে থেকে৷ কিন্তু করোনা আতঙ্কে প্রায় চার মাস রোলাঁ গারো টুর্নামেন্টের কোর্টে বল গড়াবে না বলে জানানো হয়েছে৷ ফ্রান্সে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ৫৭৩ জন৷ এই ঘাতক ভাইরাস ইতিমধ্যেই ১৪৮ জনের প্রাণ কেড়েছে এই দেশে৷ তাই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে ফরাসি ওপেন পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷

তবে বিশ্বজুড়ে ভাইরাসের কারণে এই প্রথম কোনও গ্র্যান্ড স্ল্যাম পিছিয়ে যাওয়ার মতো ঘটনা ঘটল৷ তবে ফরাসি ওপেনের পরই রয়েছে মরশুমের তৃতীয় তথা বিশ্বের সবচেয়ে ঐতিহ্যবাহী টেনিস টুর্নামেন্ট উইম্বলডন৷ ইংল্যান্ডের মাটিতে জুনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ইংল্যান্ডের৷ কিন্তু সেখানেও করোনাভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যাও প্রতিদিন হুহু করে বাড়ছে৷ তাই বিশ্বের একমাত্র ঘাসের কোর্টের এই গ্র্যান্ড স্ল্যাম হওয়া নিয়েও সংশয় দেখা দিয়েছে৷ ইংল্যান্ডে এখনও পর্যন্ত ৭১ জন করোনা ভাইরাসের শিকার হয়েছেন৷ আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় দু’হাজার৷ সুতরাং উইম্বলডনও পিছিয়ে যাওয়া এখন সময়ের অপেক্ষা৷

তবে ফরাসি ওপেনের আগে ইন্ডিয়ান ওয়েলসে বিএনপি পরিবাস ওপেন স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে৷ ক্যালিফোর্নিয়া এই টেনিস টুর্নামেন্ট হল পুরুষ ও মহিলা বিশ্বের পঞ্চম স্পোর্টস মেজর টুর্নামেন্ট৷ মার্চের শুরুতেই হওয়ার কথা ছিল এই টুর্নামেন্ট৷ কিন্তু COVID-19-এর জন্য তা আগে স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷