নয়াদিল্লি: আগেই সুখবরের আভাস মিলেছিল। কিন্তু তারিখ ঘোষণা হয়নি। এবার সেই পূর্ব ঘোষণা মত দিল্লির মহিলাদের জন্য সুখবর নিয়ে এলেন খোদ দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। চলতি বছরেই আগামী ২৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার থেকে বিনামূল্যে বাসে সওয়ার হতে পারবেন রাজধানীর মহিলারা। বৃহস্পতিবার স্বাধীনতার পুন্যলগ্নে রাজধানীর মহিলাদের জন্য এমনটাই উপহার সাজিয়ে দিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

এবছর হিন্দু ক্যালেন্ডার মতে, ২৯ অক্টোবর ভাইদুজ(ভাইফোঁটা)। সেই দিনের উপহার হিসেবে রাজধানীর মহিলাদের জন্য এমন সুখবর ঘোষণা করলেন আম আদমি পার্টির কনভেনর অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এদিন তিনি ঘোষণা করেন, দিল্লি ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন এবং ক্লাস্টার বাসগুলিতে রাজধানীর মহিলারা বিনামূল্যে যাতায়াত করতে পারবেন। এদিন দিল্লির ছাত্রসাল স্টেডিয়ামে সরকারিভাবে পালন করা হয় স্বাধীনতা দিবস। সেখানেই এই ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল।

এদিনের অনুষ্ঠান থেকেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “রাখী বন্ধনের দিন আমি আমার বোনদের উপহার দিতে চাই। সেটা হল দিল্লি ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন এবং ক্লাস্টার বাসগুলিতে রাজধানীর মহিলারা বিনামূল্যে যাতায়াত করতে পারবেন ২৯ অক্টোবর থেকে। যা তাঁদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে।”

এর আগে জুনে দিল্লির মহিলাদের জন্য বিনামূল্যে মেট্রো যাতায়াতের মত ঘোষণা করেছিলেন কেজরি। সাংবাদিকদের দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, “আম আদমি পার্টির জন্য মহিলাদের নিরাপত্তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমরা এই বিষয়ে দুটি সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এই দুটির একটি হল দিল্লির রাস্তায় সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো। অন্যটি হল মহিলাদের জন্য বিনামূল্যে যাতায়াতের সুবিধা প্রদান।”

এদিন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী এও জানান, “এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত করার জন্য আমাদের কেন্দ্রের সাহায্যপ্রার্থী হতে হবে না। দিল্লির সরকারই এই বিষয়ে ভর্তুকি বহন করবে।”

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।