নয়াদিল্লি: সামনেই বিধানসভা নির্বাচন৷ সেদিকে তাকিয়ে জনমোহিনী ঘোষণা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের৷ বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল জানান, যদি কোনও বাড়িতে ২০০ ইউনিটের কম বিদ্যুৎ খরচ হয়, তবে সেই বাড়ির বাসিন্দাদের বিদ্যুৎ খরচের জন্য কোনও টাকা দিতে হবে না৷

কেজরিওয়াল এদিন এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানান, ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুত খরচের জন্য কোনও মাশুল দিতে হবে না দিল্লিবাসীকে৷ এছাড়াও দিল্লি সরকারের ঘোষণা ৪০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুত খরচে মিলবে ৫০ শতাংশ ছাড়৷ দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনের আর একমাসও বাকি নেই৷ তার আগে এই ঘোষণা বড়সড় প্রভাব ফেলতে পারে ভোট বাক্সে, এমনই মনে করছে কেজরিওয়াল সরকার৷

দিল্লি সরকার ঘোষিত বিদ্যুতের নতুন রেট অনুযায়ী, ২ কিলোওয়াট বিদ্যুত খরচের দাম ১২৫ টাকা থেকে কমিয়ে মাত্র ২০ টাকা করা হয়েছে৷ ৫ কিলোওয়াটের খরচ ১৪০ টাকা থেকে কমিয়ে আনা হয়েছে ৫০টাকায়৷ ৫ কিলোওয়াটের বেশি ও ১৫ কিলোওয়াটের কম বিদ্যুৎ খরচ এতদিন নির্দিষ্ট হারে নেওয়া হত৷ এবার তা কমিয়ে আনা হয়েছে ১৭৫ টাকা থেকে ১০০ টাকায়৷

আরও পড়ুন : থাই মহিলাদের দিয়ে কলকাতায় রমরমিয়ে মধুচক্র, ফাঁস চক্র

তবে যে সব বাড়িতে ১২০০ ইউনিটের বেশি বিদ্যুৎ খরচ হয়, সেখানে প্রতি কিলোওয়াট পিছু ৮টাকা করে নেওয়া হলেও, এখন সেই দাম ধার্য করা হয়েছে ৭.৭৫ টাকা৷ এই ঘোষণা করে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল দিল্লিবাসীকে অভিনন্দন জানান৷ তিনি বলেন এই নিয়ে টানা পাঁচ বছর বিদ্যুতের দামে কোনও হেরফের ঘটাল না রাজ্য সরকার৷ আশাকরি মানুষ রাজ্য সরকারের জনদরদী মনোভাব বুঝবেন৷ গোটা দেশের মধ্যে একমাত্র দিল্লিতেই বিদ্যুত খরচের জন্য এত কম মূল্য দিতে হয়৷ একমাত্র দিল্লিই এমন একটা জায়গা যেখানে ২৪ ঘন্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ করার জন্য বদ্ধপরিকর রাজ্য সরকার৷

তবে এই সিদ্ধান্তকে নিজেদেরই নৈতিক জয় হিসেবে দেখছে দিল্লি বিজেপি৷ দিল্লি বিজেপি সভাপতি মনোজ তিওয়ারি জানান, বিজেপিই একমাত্র দল, যারা ক্রমাগত বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে বলে এসেছে৷ আম আদমি পার্টির সরকারের চোখ এতদিনে খুলেছে৷

আরও পড়ুন : কোটি কোটি টাকার হিসাব দিতে হবে, মুকুল-শুভ্রাংশুর নামে বিস্ফোরক পোস্টার

এর আগে, জুন মাসের শুরুতেই দিল্লির কেজরিওয়াল সরকার জানিয়েছিল, মহিলাদের যাতায়াতের কথা মাথায় রেখে দিল্লির বাস ও মেট্রোতে বিনামূল্যে পরিষেবা দেওয়া হবে৷ এমনিতেই মেট্রোর ভাড়া দিল্লিতে বেশ চড়া৷ সেই সূত্র ধরেই কেজরিওয়াল জানিয়ে ছিলেন, নিরাপদ দিল্লি গড়ে তোলার জন্য এই পদক্ষেপ জরুরি৷ তাই ডিটিসির বাস ও মেট্রোতে কোনও মহিলাকে ভাড়া দিতে হবে না৷

এক সাংবাদিক বৈঠকে কেজরিওয়াল বলেন মেট্রো বা বাসে নিরাপদ মহিলারা৷ ফলে এই সুবিধা তাঁদের দেওয়া উচিত৷ মহিলাদের মধ্যে খুব কম সংখ্যকই মেট্রোর ভাড়া দিয়ে যাতায়াত করতে পারেন৷ বেশিরভাগই তা পারেন না৷ তাই সরকারের পক্ষ থেকে ভর্তুকি দেওয়া হবে৷ যারা টিকিট কিনতে পারবেন, তাঁরা কিনবেন৷ যারা পারবেন না, তাদের পাশে সরকার রয়েছে৷ তবে সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেয় কেন্দ্র৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।