স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : সল্টলেকে অফিস খুলে প্রতারণা। ফ্ল্যাট পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ১০০ কোটি টাকার বেশি আত্মসাৎ এর চেষ্টা। অবশেষে গ্রেফতার ওই অফিসের কর্ণধার আদিত্যলাল। সে সল্টলেকেরই বাসিন্দা। এর সঙ্গে আরও বড় কোন চক্র জড়িত আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

অভিযোগ, ফ্ল্যাট দেওয়ার নাম করে কোটি কোটি টাকা প্রতারণা। প্রতারিত হয়েছেন বহু মানুষ। প্রতারণার জাল ছড়িয়েছিল রাজ্যের বাইরেও। অবশেষে বিধাননগর নর্থ থানার পুলিশের জালে মূল অভিযুক্ত। ধৃত ব্যক্তি সল্টলেক সেক্টর ১-এর বাসিন্দা আদিত্যলাল মুখোপাধ্যায় (৫৮) । সোমবার তাকে বিধাননগর মহকুমা আদালতে তোলা হলে, বিচারক ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে। এবার তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে চাইবে, এর সঙ্গে আরও বড় কোনও চক্র জড়িত আছে কিনা।

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে 420/406/468/471/120 বি / 506 আইপিসি ধারায় মামলা চলছে। যার মধ্যে ২৭ টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি ওয়ারেন্টও বিচারাধীন রয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে, ধৃত ব্যক্তি ১০০ কোটিরও বেশি টাকা প্রতারণা করেছে।

সূত্রের খবর, বরাহনগর গঙ্গার কাছে মায়ের বাড়ি নামে একটি নির্মীয়মান বাড়ির ছবি দিয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছিল আদিত্যলাল। তার ওই বিজ্ঞাপন বিভিন্ন সংবাদপত্রে বেরিয়েছি। বিজ্ঞাপন দেখে ফ্ল্যাট পাওয়ার আশায় বহু মানুষ যোগাযোগ করেন। ফ্ল্যাট দেওয়ার নাম করে তাদের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা প্রতারণা করে আদিত্যলাল।