স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: নিজের বাড়ির জমিতে সরকারি প্রকল্পের ঘর বানিয়ে দেওয়ার নাম করে প্রতারণার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে৷ আর এরপরই গোটা এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়৷

ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি শহর লাগোয়া মণ্ডলঘাট এলাকায়৷ এই ঘটনার অভিযোগ করেন এলাকারই বাসিন্দা পেশায় দিনমজুর স্বদেশ রায়৷

আরও পড়ুন: মালদহে দুই প্রতিবেশীর বিবাদ, আহত প্রৌঢ়

স্থানীয় সূত্রে খবর, অনেক দিন থেকেই পেশায় দিনমজুর তাঁর বাড়ির জমিতে সরকারি প্রকল্পের ঘরের কথা জানিয়েছিলেন প্রতিবেশীদের৷ এরপরই তিনি এক যুবকের পাল্লায় পড়েন বলে জানায় স্থানীয়েরা৷

সেই যুবককে ওই এলাকায় বেশ কদিন ঘোরাফেরা করতেও দেখা গিয়েছে৷ এমনকি অভিযোগ, এলাকার বেস কিছু বাসিন্দাকে সরকারি প্রকল্পের ঘর তৈরি করে দেবে বলে ওই যুবক আশ্বাসও দিয়েছিল৷

আরও পড়ুন: SHOOTOUT at DUMDUM PARK : প্রকাশ্যে গুলি চালনায় প্রবল উত্তেজনা

এই প্রসঙ্গে স্বদেশবাবু অভিযোগ করে বলেন, ‘‘বিডিও অফিসের কর্মীর পরিচয় দিয়ে বাড়িতে আসে এক যুবক৷ সরকারি ঘর বানিয়ে দেবে বলে চার হাজার টাকা নিয়ে চম্পটও দেয় সে। সে আসছে না দেখে তার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়৷ কিন্তু কোনও ভাবেই তাকে পাওয়া যায় না৷ এই কারণেই আমি থানার দ্বারস্থ হয়েছি৷’’

অন্যদিকে, এই বিষয়ে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার আইসি বিশ্বাশ্রয় সরকার বলেন, ‘‘আমরা অভিযোগ পেয়েছি। অভিযুক্ত যুবককে দ্রুত গ্রেফতার করা হবে৷ পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷’’

আরও পড়ুন: টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত ভারতের

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।