প্যারিসঃ বিশ্বজুড়ে ক্রমেই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বিশ্বজুড়ে ইতিমধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৮ লক্ষের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। এছাড়াও পাশপাশি মৃতের হার এক লক্ষ পেরিয়ে গিয়েছে। তবে বেশ কয়েকজন সুস্থ হওয়াতে কিছুটা হলেও আশার আলো দেখেছেন ডাক্তাররা। এছাড়া একাধিক দেশ ইতিমধ্যে শুরু করেছে এই ভাইরসের প্রতিষেধক তৈরির কাজ। তবে আমেরিকাতে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। তবে তারই মাঝে কিছুটা হলেও সংক্রমণের হার কমেছে প্যারিসে।

এছাড়াও কমেছে আইসিইউতে থাকা রোগীর পরিমাণও। বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পরা এই ভাইরসের কারণে সে দেশে সংক্রমণের হার ছড়িয়ে পড়ে ছিল কয়েক লক্ষের কাছাকাছি। কিন্তু এপ্রিলের ৫ তারিখের পর থেকে কমেছে সে দেশে নতুন করে আক্রান্তের হার। এছাড়া কমেছে মৃতের হারও। এমনটা জানা গিয়েছে সে দেশের স্বাস্থ্য আধিকারিকের তরফে। তবে কিছুটা হলেও কম হওয়াতে স্বস্তি পেয়েছেন সে দেশের সাধারণ মানুষ।

এছাড়াও স্বাস্থ্য আধিকারের তরফে এও জানা গিয়েছে সে দেশে সংক্রমণ ছড়িয়ে পরার পর থেকে যথেষ্ট কড়া সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছিল। এছাড়াও সে দেশের চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্য কর্মীরাও যথেষ্ট গুরুত্ব সহকারে পরস্থিতির দিকে নজর রেখেছিল। আর সেই কারণেই সংক্রমণের হার হ্রাস পাওয়াতে কিছুটা হলেও কমেছে সংক্রমণের হার।

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পরা এই সংক্রমণে ইতালি এবং স্পেনের পরে ফ্রান্সে সব থেকে বেশি মানুষ সংক্রমিত হয়েছিল। আর সেই কারণেই জারি কড়া হয়েছিল লক ডাউন। কিন্তু কিছুটা হলেও সংক্রমণের হার কম হওয়াতে মনে কড়া হচ্ছে শিথিল হতে পারে নিয়মের বেড়াজাল। প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো জাতির উদ্দেশে জানিয়েছেন আরও কিছুদিন জারি থাকবে এই নিষেধাজ্ঞা। তারপরে ধীরে ধীরে শিথিল করা হবে। তবে এই সংক্রমনের হার কম হওয়াতে কিছুটা হলেও আশার আলো দেখেছেন বিশেষজ্ঞরা।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV