ক্যামেরুন-জার্মানি ম্যাচের একটি মুহূর্ত ৷

বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে ক্যামেরুনের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করল জার্মানি ৷ জার্মান সমর্থকরা তো বটেই, কোচ জোয়াকিম লো-ও দলের পারফরম্যান্সে হতাশ।

মানচেনগ্লাডবাখে ম্যাচ শেষে অসন্তোষ প্রকাশ করেন লো, ‘সবাই ফ্রেশ ছিল না ৷ আমরা ভালো পাসিং ফুটবল খেলতে পারিনি ৷ খেলায় অনেক ভুল  হয়েছে ৷’  জার্মানির হতাশার ম্যাচে  ক্যামেরুনকে বেশ উজ্জীবিত দেখিয়েছে৷ বসনিয়ার কাছে হেরে গিয়েছিল ক্যামেরুন ৷ জার্মানির সঙ্গে ড্র করায় আত্মবিশ্বাস বাড়বে ক্যামেরুনের  ৷ ম্যাচের চারটি গোলই হয়েছে ৬২ থেকে ৭৮ মিনিটের মধ্যে৷ অধিনায়ক স্যামুয়েল ইটো প্রথমে এগিয়ে দেন ক্যামেরুনকেই৷ টমাস মুলার সমতা ফেরানোর পর বদলি হিসেবে নামা আন্দ্রে শুরলের গোলে এগিয়ে যায় জার্মানি৷ পরে চৌপো-মুতিংয়ের গোলে সমতা ফেরায় ক্যামেরুন৷

একই দিনে প্রস্তুতি ম্যাচে ড্র করে ফ্রান্স ৷ আগের ম্যাচে নরওয়েকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল ১৯৯৮ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নরা ৷ রিবেরি অবশ্য প্যারাগুয়ের বিরুদ্ধে নামেননি ৷ ফ্রান্সকে রুখে (১-১) দেয় দক্ষিণ আমেরিকার দেশটি ৷ যখন মনে হচ্ছে ম্যাচটি গোলশূন্য অবস্থায় শেষ হবে, ঠিক তখনই ফ্রান্স এগিয়ে যায় বদলি ফুটবলার গ্রিজমানের গোলে ৷ শেষ মুহূর্তে প্যারাগুয়ে সমতা ফেরায় ক্যাসেরাসের গোলে। ড্র করলেও হতাশ নন ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশঁ ৷ তিনি বলেন, ‘প্রতি ম্যাচেই ৪-০ জেতা সম্ভব নয় ৷’

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প