স্টাফ রিপোর্টার , হাওড়া : বুধবার ধরা পড়েছিল বিশাল কেউটে। এবার চৌবাচ্ছার মধ্যে পাওয়া গেল শিয়াল। জানা গিয়েছে, শিকার এর পিছু নিয়ে সেটি পড়ে যায় ওই চৌবাচ্চার মধ্যে। শেষ পর্যন্ত উদ্ধার হয়েছে শিয়াল।

প্রথমে বড় শিয়াল দেখে গ্রামবাসীরা আতঙ্কিত হয়ে পরেছিলেন। অনেকে পিটিয়ে মারার কথা বলছিলেন। শেষ পর্যন্ত রক্ষা হয় বন্য প্রাণ। গ্রামীণ হাওড়াতে মঙ্গল দীপ শিশু কল্যান সমিতি বহু দিন ধরে বন্য প্রাণ রক্ষা নিয়ে কাজ করছে। কখনও প্রথমিক স্কুলে কখনও গ্রামীণ মেলায়। সেখান থেকে
যুব সমাজের মধ্যে মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পরে সচেতনতা। সেই সংগঠনই এগিয়ে এসে এই বন্য প্রাণ রক্ষার দায়িত্ব নেয়।

তাদেরকে খবর দেয় শিক্ষক প্রদীপ রঞ্জন রীত। শেষে হাওড়া জেলা যৌথ পরিবেশ মঞ্চ ও ওই সংগঠন বনদফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করে। পরিবেশ কর্মীদের অনুরোধে হাওড়া রেঞ্জ থেকে কর্মীরা এসে শিয়ালটিকে উদ্ধার করে রঙিন মাছের চৌবাচ্ছা থেকে। বর্তমানে শিয়ালটি সুস্থ রয়েছে বলে খবর মিলেছে। সম্পূর্ণ সুস্থ হলে সেটিকে প্রকৃতিতে ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে বন দফতর।

সম্প্রতি মাছ ধরার একটি ঘূর্ণিতে প্রায় ৬ ফুট দৈর্ঘ্যের একটি কেউটে সাপ আটকে যায়।অভিযোগ,গ্রামেরই বেশ কিছু মানুষ সাপটিকে মারতে উদ্যত হন।ঘটনাটি জানতে পেরেই তাদের বাধা দেন গ্রামেরই দু’ই যুবক রাজু বাগ ও পাপাই জানা।শিক্ষক বিমল বোধক বিষয়টি বন দফতরে জানালে বন দফতরের কর্মীরা এসে সাপটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যান।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প