নয়াদিল্লি: এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড বা ইপিএফ অ্যাকাউন্টের সুদের হার তুলনায় আকর্ষণীয়। কিন্তু মাথায় রাখতে হবে কয়েকটি কারণে সেখান থেকে কোনও সুদ মিলবে না। একবার দেখে নেওয়া যাক কি অবস্থায় এই অ্যাকাউন্টে সুদ পাওয়া যায় না।

যদি ওই অ্যাকাউন্টটি চালু না থাকে বা ইন অপারেটিভ হয়ে যায় তাহলে সেখানে সুদ জমা হবে না।‌ ইপিএফও নিয়ম অনুসারে নিম্নলিখিত কারণে সুদ পাওয়া যাবে না।

১) যদি কোনও কর্মী ৫৫বছর পার করে অবসর নেয়

২)যদি কোনও কর্মী মারা যান

৩) যদি ওই কর্মী স্থায়ী ভাবে বিদেশ চলে যান। যদি ওই অ্যাকাউন্টে পেমেন্ট করা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরে ৩৬ মাসের মধ্যে কোনও দাবি না করা হয় বা জমা অর্থ তুলে নেওয়ার জন্য আবেদন করা হয় না তাহলে সুদ জমা বন্ধ হয়ে যায়।

যদি পুঞ্জিভূত ইপিএফ ব্যালান্স যা কর্মীকে দেওয়া যাবে তা করের আওতা থেকে ছাড় পেতে হয় তাহলে তাকে পাঁচ বছর বা তার বেশি সময় কর্মরত থাকতে হবে।

যদি কর্মী অন্য সংস্থায় কাজ করতে চলে যায় তাহলে ইপিএফ এ থাকা তার ব্যালেন্স ট্রানস্ফার করে দেওয়া যেতে পারে নতুন অ্যাকাউন্টে এবং করের ক্ষেত্রে ওই কর্মীর ধারাবাহিকভাবে কাজ চলছে বলে ধরা হয় যদি পাঁচ বছর বা তার বেশি সময়ের হয়।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।