স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: ডাকাতি করতে এসে শেষ রক্ষা হল না। অবশেষে ধরা পড়ল পুলিশের জালে। তবে ডাকাতির উদ্দেশ্যে জড়ো হওয়া চার সশস্ত্র দুষ্কৃতীকে পাকড়াও করল পুলিশ। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের সুতাহাটা থানার কুঁকড়াহাটি এলাকায়৷

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই এলাকার জেটিঘাটর কাছ থেকে চার সশস্ত্র দুষ্কৃতীকে পাকড়াও করে পুলিশ৷ ধৃতরা হল শেখ জয়নাল (৩২) বাড়ি রাজারামপুরে৷ আমনাননগরের বাসিন্দা শেখ আনসার (৪০)৷ শেখ সৈয়দ (৩৫) তার বাড়ি মহিষাদলে৷ চতুর্থ জন তমলুক মাতঙ্গিনী এলাকার বাসিন্দা প্রশান্ত মাঝি (৩৪)৷

গভীর রাতে সুতাহাটা থানার কুঁকড়াহাটি জেটিঘাটের কাছে ডাকাতির উদ্দেশ্যে ১০-১২ জন সশস্ত্র দুষ্কৃতী জড়ো হয়েছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সুতাহাটা থানার পুলিশ তাদের ধাওয়া করে। এরপর পুলিশকে দেখে সাত-আট জন দুষ্কৃতী মোটরবাইকে করে পালিয়ে যায়। তবে ফিল্মী কায়দায় পুলিশ চার জন দুষ্কৃতীকে হাতেনাতে পাকড়াও করে।

পুলিশ জানায়, দুষ্কৃতীদের কাছ থেকে ছুরি, ভোজালি, লোহার রড, লোহার চেন, সাটার কাটার যন্ত্র এবং তিনটি মোটরবাইক উদ্ধার করেছে। শনিবার ধৃতদের হলদিয়া মহকুমা আদালতে তোলা হয়। বিচারক তাদের ১৪ দিনের জেল হেপাজতের নির্দেশ দেন।

সুতাহাটা থানার ওসি চন্দ্রকান্ত শাসমল বলেন, ‘‘দুষ্কৃতীরা ডাকাতির উদ্দেশ্যেই জড়ো হয়েছিল। কিন্তু ডাকাতির আগে আমরা তাদের গ্রেফতার করেছি। এখানে কোন সমাজবিরোধীদের প্রশ্রয় দেওয়া হবে না।’