শ্রীনগর: ২০১৭ সালের ১০ই জুলাই৷ অমরনাথ যাত্রা সেরে ফেরার পথে তীর্থযাত্রীদের বাস লক্ষ্য করে হামলা চালায় জঙ্গিরা৷ ঘটনায় মারা যান ৮জন তীর্থযাত্রী৷ তাঁদের মধ্যে ৫ জন মহিলা ছিল৷ এছাড়াও মোট ১৮ জন আহত হন৷ ঘটনার পেছনে পাকিস্তান মদতপুষ্ট লস্কর-ই-তইবার হাত রয়েছে বলে দাবি করেন কাশ্মীরের তৎকালীন আইজিপি মুনীর খান৷

গোটা ঘটনার তদন্তভার হাতে নেয় এনআইএ৷ সেই তদন্তে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য৷ জানা গিয়েছে, ২০১৭ সালের ওই হামলায় তীর্থযাত্রীদের বাসে হামলা চালানো হয়েছিল যে গাড়ি থেকে, সেই গাড়িটি প্রাক্তন পিডিপি বিধায়ক আজিজ আহমেদ মীরের৷

উল্লেখ্য, সেই সময় জম্মু কাশ্মীরে বিজেপির সঙ্গে জোটে ক্ষমতায় ছিল পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টি বা পিডিপি৷ জম্মু কাশ্মীর পুলিশের এডিজিপি জানাচ্ছেন, এনআইএর রিপোর্ট অনুযায়ী, অমরনাথ যাত্রায় তীর্থযাত্রীদের ওপর হামলা চালানোর সময় জঙ্গিরা ওই বিধায়কের গাড়িই ব্যবহার করেছিল৷ দক্ষিণ কাশ্মীরের সোপিয়ান জেলার ওয়াচি বিধানসভা কেন্দ্র থেকে জয়ী প্রার্থী আজিজ মীর৷ জঙ্গি কার্যকলাপের প্রতি তিনি সহানুভুতিশীল বলে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে৷

প্রাক্তন এই বিধায়কের অতীত রেকর্ড খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে খবর৷ কোথাও কোনও জঙ্গি কার্যকলাপের সঙ্গে তিনি যুক্ত কীনা, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ এজন্য জম্মু কাশ্মীর পুলিশের সাহায্য চেয়েছে এনআইএ৷ পুলিশের সাহায্যে মীরের রেকর্ড খুঁটিয়ে দেখা হবে৷

এর আগে, অমরনাথ যাত্রীদের উপর হামলার ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় প্রাক্তন পিডিপি বিধায়ক আজিজ আহমেদ মীরের গাড়িচালককে৷ তখন মীর জানিয়েছিলেন সাত মাস আগে ওই গাড়িচালক তার কাছে কাজে যুক্ত হয়৷ এই গাড়িচালক জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন এক পুলিশ কর্মী৷ তার নাম তোসেফ আহমেদ বলে জানা যায়৷