শ্রীনগর: পাকিস্তানকে এক প্রাক্তন সেনাকে সীমান্তের কাছ থেকে গ্রেফতার করল বিএসএফ। বৃহস্পতিবার ওই ব্যক্তিকে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখার যায় ও তাকে গ্রেফতার করা হয়। কাশ্মীরের সাম্বার কাছ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিন বিএসএফের কাছে খবর আসে যে, সীমান্তের আশেপাশে কারা যেন ঘোরাফেলা করছে। সন্দেহ হওয়াতেই ওইসব জায়গা ঘিরে ফেলে বিএসএফ। সাম্বার সীমান্তের কাছে আইবি-র সঙ্গে বিশষ নজরদারি চালায় বিএসএফ। এরপরই ওই পাকিস্তানিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে ওই ব্যক্তির নাম মহম্মদ আফজল। সে পাকিস্তানের শকেরগড়ের বাসিন্দা। তার কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন ও একটি ডেটা কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে। জেরার জন্য তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। জেরায় সে জানিয়েছে যে ন’বছর পাক সেনায় কাজ করার পর ছেড়ে দিয়েছে।

পাকিস্তানের স্পেশাল সার্ভিস গ্রুপের সঙ্গে কাজ করেছে এই ব্যক্তি। কী কারণে সীমান্ত পার করে ভারতে প্রবেশ করার চেষ্টা করেছে, তা জানতে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।

অন্যদিকে, শুক্রবার সকালেই ফের এনকাউন্টার কাশ্মীরে। সেনার গুলিতে খতম হয়েছে কাশ্মীরের একমাত্র আইএস কমান্ডার ইশফাক আহমেদ। এই জঙ্গি আল-কায়েদা কমান্ডার জাকির মুসার ঘনিষ্ঠ বলে জানা গিয়েছে।

শুক্রবার সকালে কাশ্মীরের সোপিয়ানে শুরু হয় সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াই। মৃত জঙ্গির কাছ থেকে প্রচুর অস্ত্র উদ্ধার করেছে সেনাবাহিনী। আইএসের কমান্ডারকে নিকেশ করা বড় সাফল্য বলেই মনে করছে সেনা।

কয়েকদিন আগেই এই সোপিয়ানে এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় তিন জঙ্গির। গত ৩ মে হয় সেই এনকাউন্টার। এই জঙ্গিকে খতম করতে পারায় জাকির মুসার কাছে পৌঁছনো সহজ হল বলেই মনে করছে সেনাবাহিনী।