তিরুঅনন্তপুরম: কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করে পাপ্পু নামে ডাকা এখন অতীত। তাঁর নতুন নামকরণ করেছেন কেরলের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বাম নেতা ভিএস অচ্যুতানন্দ। রাহুল গান্ধিকে তিনি ‘আমুল বেবি’ বলে সম্বোধন করেছেন।

দেশ জুড়ে গেরুয়া ঝড়ের উত্থান এবং অবিজেপি জোট গঠনের ক্ষেত্রে বাম-কংগ্রেস জোট গঠন করতে প্রস্তুত ছিল। যদিও ভটের আগে জোটের পথে যেতে নারাজ বামেরা। জোট না হলেও কংগ্রেসের সঙ্গে বিরোধ খুব বেশি ছিল না। যা গত দু’দিন ধরে প্রকট আকার নিয়েছে।

বাম-কংগ্রেসের সম্পর্ক শীতল হওয়ার বড় কারণ হচ্ছে, কেরল থেকে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধির প্রার্থী হওয়া। গত লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দুটি লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়াই করেছিলেন৷ দুটি কেন্দ্র থেকেই ভোটে জয়ী হন তিনি৷ এবার সেই পথে হাঁটছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ নিজের গড় আমেঠি ছাড়া আরও একটি কেন্দ্র থেকে লড়তে দেখা যাবে সোনিয়া পুত্রকে৷

এই দুই কেন্দ্র থেকে বিশেষ করে কেরলের ওয়ানাড থেকে রাহুল গান্ধীর প্রতিদ্বন্দ্বীতা করাকে কটাক্ষ করেছেন ভিএস অচ্যুতানন্দ। রাহুল গান্ধীর এই দুই কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হওয়াকে কংগ্রেসের রাজনৈতিক অজ্ঞতা বলে দাবি করেছেন তিনি। একই সঙ্গে কংগ্রেসকে বামেদের সব থেকে বড় শত্রু বলে রাহুল গান্ধীকে ‘আমুল বেবি’ বলেও কটাক্ষ করেছেন তিনি। এর আগে ২০১১ সালেও এই একই ভাষায় রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করেছিলেন অচ্যুতানন্দ।

কংগ্রেসের উদ্দেশ্যে বামেদের প্রশ্ন, এত কেন্দ্র থাকতে কেরল কেন? তাহলে কি বিজেপিকে ছেড়ে বামেদের প্রধান টার্গেট করেছে কংগ্রেস? কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পি বিজয়ন জানান, রাজ্যের ২০টি কেন্দ্রের মধ্যে যেকোনও একটি কেন্দ্র থেকে তিনি লড়তেই পারেন৷ কিন্তু খুব ভালো হত যদি রাহুল বিজেপির বিরুদ্ধে প্রার্থী হতেন৷ এতে এটাই প্রমাণ হয় যে কংগ্রেস বামেদেরকে তাদের মূল প্রতিপক্ষ মনে করে৷

অপরদিকে সিপিএমের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ কারাতও কংগ্রেসের সিদ্ধান্তে হতাশ৷ বিজয়নের সঙ্গে তিনিও একমত৷ সংবাদসংস্থা এএনআইকে কারাত জানান, জাতীয় স্তরে কংগ্রেস বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ডাক দিয়েছে৷ এদিকে রাজ্যে রাজ্যে তারাই বিজেপি বিরোধী দলগুলির বিরুদ্ধে লড়ছে৷ এর জন্য জাতীয় স্তরে ভুগতে হবে কংগ্রেসকে৷ বামেদের বিরুদ্ধে কংগ্রেস সভাপতি নিজে দাঁড়াচ্ছেন- এর মানে তো এটাই দাঁড়ায় কেরলে বামেদেরকে টার্গেট করেছে কংগ্রেস৷ তবে বামেরা তাঁর বিরুদ্ধে লড়বে এবং ওয়ানাড কেন্দ্র থেকে রাহুলকে গো হারা হারাবেন৷

এই দুই বিরোধী দলের বিরোধের মাঝে ফায়দা খোঁজার চেষ্টা করছে বিজেপি। সোমবার এই বিষয়ে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন, “বাম-কংগ্রেসের বিরোধের মাঝে এনডিএ জোটকে কেরলের সাধারণ মানুষ বিকল্প হিসেবে মেনে নেবে।”