কেপ টাউন: ক্রিসমাসের উৎসবের মধ্যেই চলে গেলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকর রবিন জ্যাকমান৷ শুক্রবার ৭৫ বছর বয়সে মারা যান ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার৷

ক্রিকেটার হিসেবে বিশেষ খ্যাতি অর্জন করতে না-পারলেও, বিচক্ষণ ক্রিকেটবুদ্ধি ও তাঁর কণ্ঠস্বরের জন্য ধারাভাষ্যকর হিসেবে দারুণ জনপ্রিয় ছিলেন জ্যাকম্যান৷ ইংল্যান্ডের আর এক প্রাক্তন ব্যাটসম্যান জন এডিরিচের মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই জ্যাকম্যানের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়৷

ইংল্যান্ডের হয়ে ক্রিকেট খেললেও জ্যাকম্যানের জন্ম ভারতের শিমলায়৷ প্রথমশ্রেণির ক্রিকেটে ১৪০২টি উইকেটের মালিক জ্যাকম্যান ইংল্যান্ডের হয়ে ৪টি টেস্ট এবং ১৫টি ওয়ান ডে খেলেছেন৷ তবে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় চলে যান তিনি৷ সেখানেই ধারাভাষ্যকর হিসেবে নাম করেন৷ জনপ্রিয় এই ধারাভাষ্যকর ‘জ্যাকার্স’ নামে পচিরিত ছিলেন৷ ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের হয়ে খেলার পাশাপাশি দক্ষিণ আফ্রিকাতেই জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেন জ্যাকম্যান৷

১৯৮১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট অভিষেক হলেও জ্যাকম্যানের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল ভারতের বিরুদ্ধে৷ ১৯৭৪ সালে ভারতের বিরুদ্ধে লিডসে ওয়ান ডে অভিষেক হয়েছিল প্রাক্তন এই ইংল্যান্ড পেসারের৷ জ্যাকম্যানের দখলে রয়েছে ১৪টি টেস্ট এবং ১৯টি ওয়ান ডে উইকেট৷ আন্তর্জাতিকে সফল না-হলেও ৩৯৯টি প্রথমশ্রেণির ম্যাচে ১৪০২টি উইকেট রয়েছেন তাঁর৷

তাঁর মৃত্যুতে আইসিসি-র তরফে শোকপ্রকাশ করা হয়৷ জ্যাকম্যানের মৃত্যুর খবর জানিয়ে টুইটারে আইসিসি-র তরফে লেখা হয়, “We are saddened to learn about the death of legendary commentator and former England bowler Robin Jackman, who has passed away aged 75.”

তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রাক্তন প্রোটিয়া অধিনায়ক এবি ডি’ভিলিয়ার্স৷ টুইটারে এবি লেখেন,”RIP Jackers #robinjackman”৷ জনপ্রিয় এই ধারাভাষ্যকরের ক্যানসার ধরে পড়ে ২০১২ সালে৷ তারপর তাঁক ভোকাল কর্ড থেকে অস্ত্রোপচার করে ম্যালিগন্যান্ট টিউমার বের করা হয়েছিল৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।