নয়াদিল্লি: শেষমেশ সত্যি হল জল্পনাটা৷ ইঙ্গিত ছিল আগে থেকেই৷ খেলা ছাড়ার পর রাজনীতির আঙিনায় নতুন ইনিংস শুরু করলেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর৷ শুক্রবারই কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপির ঝাণ্ডা হাতে তুলে নিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের দু’বারের আইপিএলজয়ী প্রাক্তন অধিনায়ক৷

খেলা ছাড়ার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত সক্রিয় গম্ভীর নিজের জাতীয়তাবাদী ভাবধারার জন্য অত্যন্ত জনপ্রিয়৷ ক্রিকেটের পাশাপাশি সমাজসেবামূলক কাজে প্রায়শই হাত লাগাতে দেখা যায় তাঁকে৷ তাঁর নিজের একটি স্বেচ্ছ্বাসেবী সংস্থা রয়েছে৷ বিশেষ করে ভারতীয় সেনাবাহীনি নিয়ে গম্ভীর আগাগোড়া অত্যন্ত শ্রদ্ধাশীল৷ বেশ কয়েকজন শহীদ জওয়ানের ছেলেমেয়ের পড়াশোনার দায়িত্বও নিয়েছেন গম্ভীর৷

আরও পড়ুন: এবার কথা হোক যুদ্ধক্ষেত্রেই, হুঁশিয়ারি গম্ভীরের

শুক্রবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির হাত ধরে বিজেপিতে আসেন গম্ভীর৷ তারকা ক্রিকেটারকে বিজেপিতে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ৷

গম্ভীরের হাতে বিজেপির পতাকা তুলে দিয়ে অরুণ জেটলি বলেন, ‘ভারতকে দু’টি বিশ্বকাপ এনে দেওয়ার অন্যতম কারিগর গম্ভীর ক্রিকেটের মাঠে নিজের কার্যকরীতা প্রমাণ করেছেন৷ এবার রাজনীতির মাঠে নিজের আলাদা পরিচিতি তৈরি করতে চলেছেন৷’

আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে পদ্ম পুরস্কার নিলেন গম্ভীর-ছেত্রী

গম্ভীরকে দলের কার্যকর্তা হিসাবে বর্ণানা করলেও এবং লোকসভা ভোটে দলের প্রচারে অশং নেবেন বলে জানালেও এখনও পর্যন্ত তাঁর ভোটে দাঁড়ানো প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করেননি জেটলি৷ বিশয়টি তিনি দলের নির্বাচন কমিটির উপর ছেড়ে দেওয়ার কথা বলেন৷ তবে শোনা যাচ্ছে দিল্লির কোনও কোন্দ্র থেকেই লোকসভা ভোটে লড়তে পারেন গোতি৷

রাজনীতির বাইশগজে পা দিয়ে গম্ভীর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রভাবশালী নেতৃত্বে আনুপ্রাণিত হয়েই রাজনীতিতে আসার সিদ্ধান্ত নিই৷ বিজেপিতে আমাকে জায়গা করে দেওয়ার জন্য জেটলি স্যার, রবিশংকর স্যারকে ধন্যবাদ৷ দেশের স্বার্থে আমি সবসময় কাজ করতে চাই৷ আমি দলের প্রত্যাশা পূরণে নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব৷’

আরও পড়ুন: পয়েন্ট হারাতে হলেও বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ বয়কট করুক ভারত: গম্ভীর

এর আগে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজের রাজনীতিতে আকৃষ্ট হওয়ার প্রসঙ্গে গম্ভীর জানিয়েছিলেন, ‘ক্ষমতার পিছনে দৌড়ানো আমার রক্তে নেই৷ সত্যি কথা বলতে কোনদিন রাজনীতিতে আসব, এমন কোনও সুপ্ত বাসনা কখনও ছিল না৷ সত্যিই যদি কোন দিনও রাজনীতির চৌকাঠে পা রাখতে হয়, সেক্ষেত্রে আমার ক্রিকেটীয় কৃতিত্ব যেন বিবেচনা না করা হয়৷ মানুষ গম্ভীরকে দেশ গড়ার কারিগড় বলে মনে করলে তবেই যেন আমায় ভোট দেন৷’

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।