স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: অবৈধভাবে জঙ্গলের গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘঠনাটি বাঁকুড়ার তালডাংরার আসনা-সুন্দরপুর এলাকায়। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থার দাবি জানিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন স্থানীয় বন সুরক্ষা কমিটির সদস্যরা।

সম্প্রতি তালডাংরা রেঞ্জ এলাকার আসনা-সুন্দরপুর মৌজায় জঙ্গল কাটার কাজ শেষ করে বনদফতর। পরে সেই কাঠ তালডাংরা ডিপোতে স্থানান্তরিত করা হয়। আসনা-ভালুকা বন সংরক্ষণ কমিটির সদস্যদের অভিযোগ, এরপর স্থানীয় ফকিরডাঙ্গা গ্রামের জনৈক রঞ্জিত লায়েক বেশ কিছু গাছ অবৈধভাবে কেটে ফেলেন।

গাছ কাটার সময় রঞ্জিত লায়েককে হাতে নাতে ধরে বনদফতরের হাতে তুলে দিলেও তারা কোনও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়নি বলে আসনা-ভালুকা বন সংরক্ষণ কমিটির সদস্যরা অভিযোগ করছেন। অভিযুক্ত ব্যক্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে তারা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানা গিয়েছে৷

স্থানীয় বাসিন্দা সঞ্জয় দের দাবী, রঞ্জিত লায়েক সম্পূর্ণ অবৈধভাবে এই সব গাছ কেটেছেন। তিনি ছাড়াও এই ঘটনায় আরো যারা যুক্ত রয়েছেন তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতেও তিনি সরব হন। তালডাংরা পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য ও স্থানীয় বাসিন্দা পার্থ সারথী মাকুড়ও বলেন, সম্পূর্ণ অবৈধভাবে ঐ ব্যক্তি গাছ কাটছেন। ইতিমধ্যে বেশ কয়েক ট্রাক্টর কাটা গাছ তিনি বাইরে পাচার করে ফেলেছেন। অভিযুক্ত রঞ্জিত লায়েক তাদের কাছে ও স্থানীয় বিট অফিসে গাছ কাটার কথা স্বীকার করেছেন দাবি করে তিনি বলেন, এই ঘটনায় যুক্ত প্রত্যেকের শাস্তির দাবি করছি।

যদিও বনদফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে জানানো হয়েছে। তালডাংরা বনাঞ্চলের দায়িত্বপ্রাপ্ত রেঞ্জার তন্ময় হারা বলেন, অভিযুক্ত যেই হোক না কেন বেআইনী কিছু হয়ে থাকলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।