ইসলামাবাদ: পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত হলেন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ কন্যা মারিয়াম৷ এই ঘটনাটি তদন্ত করার জন্য একটি যৌথ তদন্ত দল(JIT) তৈরি করা হয়৷ মঙ্গলবার এই বিশেষ তদন্তকারী দলটিই দাবি করেছে, পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির তদন্তের জন্য মারিয়াম যে তথ্যাদি দিয়েছে, সেগুলি সবকটিই নকল৷ এই সমস্ত নথিপত্রগুলি ক্যালিব্রি ফন্টে লেখা৷ কিন্তু যেই সময়ে এই তথ্যাদিগুলি লেখা উচিত সেই সময়ে এই ফন্টটি বাজারে প্রযোজ্য ছিলনা বলে জানিয়েছে জেআইটি৷

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং তাঁর পরিবারের সদস্যদের দুর্নীতির অভিযোগে এই বিশেষ তদন্তটি করা হয়৷ এই বিশেষ তদন্তে উঠে এসেছে একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য৷ সুপ্রীম কোর্টকে বিভ্রান্তিতে ফেলে দেওয়ার জন্য মারিয়ানার ভাই হুসেন এবং হাসান নওয়াজ, এমনকি মারিয়ামার স্বামী ক্যাপ্টেন মহম্মদ সাফদারও ভুল নথিপত্রে সাক্ষর করে৷

যদিও মারিয়াম নওয়াজ জানিয়েছেন, তিনি নাকি লন্ডনের এভেনফিল্ড সম্পত্তির একজন ট্রাস্টি৷ সেই সম্পত্তির মালিক তিনি নন৷ কিন্তু জেআইটি দাবি করেছে, এই বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে মিথ্যে৷ জেআইটির তদন্তে উঠে এসেছে, লন্ডনের ওই সম্পত্তির মালিক মারিয়ামই৷ এভেনফিল্ড অ্যাপার্টমেন্টটি দেখভালের দায়িত্বভার অর্পিত আছে মিনের্ভা সার্ভিসের উপর৷

জেআইটির তদন্তে উঠে এসেছে আরও একটি তথ্য৷ গত ২০০৯ থেকে ২০১৬সালের মধ্যে মারিয়াম ৭৩.৫মিলিয়ন থেকে ৮৩০.৭৩মিলিয়নের মূল্যবান গিফট পেয়েছেন৷ সেটির কোনও সঠিক হিসেবও দেখাতে পারেননি মারিয়াম৷ তবে, জেআইটি-র তদন্তে উঠে আসা ক্যালিব্রি ফন্টের এই বিশেষ রিপোর্টটি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল সাইটে৷ জেআইটি-কে মিথ্যে নথিপত্র দিয়ে হেনস্থা করার