তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়াঃ সকাল থেকেই ঘন কুয়াশা বাঁকুড়া জেলা জুড়ে। জেলার উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্রই এত বেশী কুয়াশার পরিমাণ যে সামনের জিনিসও দেখা যাচ্ছে না। আর এই ঘন কুয়াশার জেরে বাস, ট্রেন সব কিছুই দেরীতে চলছে।

রেল সূত্রে খবর, নন্দনকানন এখক্সপ্রেস (নিউ দিল্লী- ভূবনেশ্বর) সাড়ে ৪ ঘন্টা, হাওড়া চক্রধরপুর ১ ঘন্টা ১৫ মিনিট, পুরুলিয়া-হাওড়া এক্সপ্রেস ২০ মিনিট, শিরোমণী ফার্স্ট প্যাসেঞ্জার ২৫ মিনিট, খড়গপুর-রাঁচি-২৫মিনিট সহ বিভিন্ন লোক্যাল ট্রেন দেরীতে চলছে। কর্তব্যরত এক রেলের চালক জয়ন্ত ব্যানার্জী বলেন, কুয়াশার কারণে একটু দেরীতে চলছে। রেলের নিয়মানুযায়ী সিগন্যাল দেখলে তবেই ট্রেন চলবে বলে তিনি জানান।

কুয়াশার কারণে চরম সমস্যায় পড়েছে দূরপাল্লার যাত্রীবাহি বাস ও পণ্যবাহি যানবাহন গুলির চালকরাও। বাসচালক কমল চক্রবর্ত্তী, লরিচালক নারান দত্তরা বলেন, কুয়াশার কারণে গাড়ি চালানোই অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে। সঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছানো কোন মতেই সম্ভব নয় বলে তারা জানিয়েছেন।

ট্রেনযাত্রী সুরজিৎ চৌধুরী বলেন, কুয়াশার কারণে খুব সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। ট্রেন দেরীতে চলছে। একই সঙ্গে এই কুয়াশার ফলে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়বেন, চাষাবাদেরও ক্ষতি হবে বলে তিনি মনে করেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.