নয়াদিল্লি: আত্মনির্ভর ভারত। নয়া শ্লোগান কেন্দ্র সরকারের। বিদেশি পণ্যের ওপর নির্ভরশীল হয়ে না থেকে দেশীয় পণ্যকে সুযোগ করে দেওয়াই আত্মনির্ভর ভারতের মূল মন্ত্র। সেই দিকে নজর রেখেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের আওতায় শুরু হয়েছে আত্মনির্ভর ভারত পরিকল্পনা।

এই আত্মনির্ভর ভারত পরিকল্পনার প্রথম ধাপ হিসেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সোমবার থেকে শুরু করছে আত্মনির্ভর ভারত সপ্তাহ। বেলা সাড়ে তিনটের সময় এই ইভেন্ট শুরু হবে। ট্যুইট করে একথা জানিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর অফিস।

উল্লেখ্য অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে বিশ্বে ভারত রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। অস্ত্র রফতানিতে ২৩ নম্বর স্থানে রয়েছে ভারত। প্রধানমন্ত্রী মোদী আগামী পাঁচ বছরে প্রতিরক্ষা রফতানিতে ৫বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা রেখেছেন। তাঁর আশা ভারত আগামী পাঁচ বছরে অর্থাৎ ২০২৫ সালের মধ্যে ১.৭৫ লক্ষ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম রফতানি করতে সক্ষম হবে।

রবিবার অর্থাৎ ৯ই অগাষ্ট বেশ কয়েকটি ট্যুইট করে। জানানো হয়, ভারতীয় সেনাবাহিনী, সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা এবং স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠকের পর সেই তালিকা তৈরি করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।

তিনি আরও জানান, ২০১৫ থেকে ২০২০-র মধ্যে তিন বাহিনীতে এরকম অন্তত সাড়ে ৩ লক্ষ টাকার অস্ত্র ও সরঞ্জাম আমদানি করা হয়েছে। এবার এই সিদ্ধান্তের পর ভারতীয় সংস্থাই ৪ লক্ষ টাকার বরাত পাবে আগামী ৬-৭ বছরে।

ওই ১০১ টি জিনিসের তালিকায় রয়েছে আর্টিলারি গান, কমব্যাট হেলিকপ্টার, অ্যাসল্ট রাইফেল, কভার্ট, রাডার, সশস্ত্র গাড়ি, ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফট সহ একাধিক উচ্চপ্রযুক্তিসম্পন্ন অস্ত্র। এবার থেকে এসবই তৈরি হবে ভারতে। মোট ১০১ টি সরঞ্জাম আমদানি করার ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্ত বলবৎ করা হচ্ছে। কী কী থাকছে সেই ১০১টি সরঞ্জামের তালিকায়।

রয়েছে আর্টিলারি গান, অ্যাসল্ট রাইফেল, রাডার, ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফট ইত্যাদি। সশস্ত্র ফাইটিং ভেইকলের ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। অন্তত ৫০০০ কোটি খরচে সেই গাড়ি কেনার কথা ছিল। ভারতের নিজস্ব প্রযুক্তি ও নিজস্ব ডিজা্ন দিয়ে সেইসব সরঞ্জাম দেশের মাটিতে তৈরি করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

ওই ১০১ টি জনিসের তালিকায় রয়েছে আর্টিলারি গান, কমব্যাট হেলিকপ্টার, অ্যাসল্ট রাইফেল, কভার্ট, রাডার, সশস্ত্র গাড়ি, ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফট সহ একাধিক উচ্চপ্রযুক্তিসম্পন্ন অস্ত্র। এবার থেকে এসবই তৈরি হবে ভারতে। জানিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও