নিউ সাম্যুরেনা: অনেক মানুষ আছেন যারা সমুদ্রের ধারে ঘুরতে যেতে পছন্দ করেন। কিন্তু একবার ভেবে দেখুন সমুদ্রের ধারে ঘুরতে ঘুরতে যদি বেশ কিছু হাঙর যদি আপনার পায়ের কাছে চলে আসে। নিশ্চিতভাবে বলা যায়, এমনটা হলে আপনি দ্বিতীয়বার সমুদ্রের ধারে যাওয়ার আগে দুবার ভাববেন। সম্প্রতি ফ্লোরিডার এক সার্ফার জেরেমি জনসন নিজের ইন্সটাগ্রামে এইরকমই একই ভিডিও শেয়ার করেছেন। যা দেখে রীতিমত অবাক নেটিজেনরা।

তিনি নিউ সাম্যুরেনা বিচের কাছ ঘুরতে ঘুরতে এই ভিডিওটি রেকর্ড করেছেন। ওই সময়ে আচমকা চারিদিক থেকে বেশ কিছু হাঙর তাঁর দিকে ধেয়ে আসে। সে সময়ে ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন তিনি। চারিদিক থেকে ঘেরাও হয়ে গিয়েছিলেন। কোনওভাবে বেরিয়ে এসেছিলেন তিনি।

৩৩ বছর বয়সী এই সার্ফার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ওইদিন সকালে ঢেউ আসার আগে অধিক সংখ্যক মৎসজীবী ওই চত্বরে দেখেছিলেন। হাঙররা স্বাভাবিকভাবে সামুদ্রিক জীব খেয়েই জীবনধারণ করে থাকে। ওই এলাকাতে একাধিক হাঙর আসার কারণ মাছের আধিক্য।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ওই সময় আবহাওয়া যথেষ্ট পরিষ্কার ছিল যে কারণে ক্রমেই বাড়ছিল সমুদ্রের ঢেউ। তাই তিনি সমুদ্র থেকে দূরে সরে গিয়েছিলেন। তিনি কোনক্রমে নিজের বোটে উঠে হাতে করে প্যাডেলে চাপ দিচ্ছিলেন। ঠিক কতগুলো হাঙর ওই এলাকাতে রয়েছে তাঁর কোন স্পষ্ট ধারণা না থাকার কারণে তিনি কোন রকম ঝুকি নিতে চাননি।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে আপলোড করার সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। ইন্সটাগ্রামে আপলোড হওয়া ভিডিওটি প্রায় ১৫ হাজার বার দেখা হয়েছে। আর তাও মাত্র দুদিনের মধ্যে।

ইতিমধ্যে অধিক হাঙরের কারণে ওই বিচকে বিশ্বে হাঙরদের ক্যাপিটালও বলা হয়। গত জুলাইতে এক দম্পতি এই বিচে ঘুরতে গিয়েছিলেন। কিন্তু ওই ভিডিও দেখার পরে আর সাহস পাননি সমুদ্রে নামতে।