কলকাতা: বুধবার ৪৮-এ পা দিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটের ‘বস’৷ বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম জন্মদিন পালন করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়৷ সম্প্রতি ভারতীয় টেস্ট দলের ওপেনার ময়াঙ্ক আগরওয়ালের সঙ্গে অন-লাইন শো-তে নিজের পছন্দের টেস্ট টিমের কথা জানান প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক৷ সেই টিমে বিরাট কোহলির দলের পাঁচ ক্রিকেটারকে রাখলেন সৌরভ৷

২০০০ সালে ম্যাচ ফিক্সিং-এর কালো ছায়া থেকে ভারতীয় ক্রিকেটকে পাদপ্রদীপের আলোয় প্রতিষ্ঠা করার কাজটা খুব সহজ ছিল না। কিন্তু দক্ষ হাতে সেই কাজটা করেছিলেন বেহালার বীরেন রায় রোডের এই ছেলেটা। ১৯৯২ ওয়ান ডে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে (ওয়ান-ডে) অভিষেকটা সুখের হয়নি। চার বছর বাদে ১৯৯৬ ঐতিহাসিক লর্ডসে টেস্ট অভিষেকে শতরান। সেই শুরু ভারতীয় ক্রিকেটে সৌরভ যুগের৷

বিসিসিআই-এর ওয়েবসাইটে ভিডিও চ্যাট শোয়ে সৌরভকে তাঁর পছন্দের টেস্ট টিম সম্পর্কে জিজ্ঞেস করেছিলেন ময়াঙ্ক৷ যার উত্তরে সৌরভ বলেন, ‘এটা খুব কঠিন প্রশ্ন৷ আমি মনে করি, প্রত্যেক জেনারেশনের ক্রিকেটাররে ভিন্ন ধরনের হয়৷ তাদের ভিন্ন ধরনের চ্যালেঞ্জ ফেস করতে হয়৷ পিচ এবং প্রতিপক্ষও ভিন্ন হয়৷ তবে বর্তমান ভারতীয় দলের পাঁচ ক্রিকেটারকে আমি দলে রাখতে চাইব৷ বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা ছাড়াও জসপ্রীত বুমারহ, মহম্মদ শামি এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে রাখব৷

কারণ ব্যাখ্যা করে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘বোলিং দু’দিন থেকে জসপ্রীত বুমরাহ ও জাহির খানকে রাখব৷ এছাড়া তৃতীয় পেসার হিসেবে শামিকে রাখব৷ কারণ জাভাগল শ্রীনাথের পর শামি দুর্দান্ত বোলার৷ আর তিন স্পিনারের মধ্যে হরভজন সিং, অনিল কুম্বলে এবং অশ্বিন৷ আর অল-রাউন্ডার হিসেবে রবীন্দ্র জাদেজাকে রাখব৷’

সৌরভের নেতৃত্বে ২০০৩ বিশ্বকাপে রানার্স হয়েছিল ভারত৷ ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেছিল টিম ইন্ডিয়া৷ এছাড়াও ২০০১ ঘরের মাঠে স্টিভ ওয়ার অপ্রতিরোধ্য অস্ট্রেলিয়ার টেস্টে বিজয়রথ থামানো এবং ২০০২ ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জয় সৌরভের নেতৃত্বে টিম ইন্ডিয়ার অন্যতম সাফল্য৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ