স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান : নজির গড়ল বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অনাময় সুপার স্পেশালিটি উইং। প্রায় ৫ ঘণ্টা ধরে অস্ত্রপচার করে ৬৫ বছরের এক রোগীণীর কাঁধের সংযোগস্থলের হাড় পরিবর্তন করলেন চিকিত্সকরা। বর্ধমান অনাময় সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগের চিকিত্সক বিপ্লব চ্যাটার্জী জানিয়েছেন, প্রায় দেড়মাস আগে মেমারী থানার নুদিপুরের বাসিন্দা সাবিত্রী কর্মকার পড়ে গেলে তাঁর বাঁ কাঁধের সংযোগস্থলের হাড় ঘুরে যায়।

এরপর তাঁকে সরাসরি অনাময়ে নিয়ে আসা হয়। এখানেই তার চিকিত্সা চলছিল। কিন্তু ওই হাড় পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে বিপুল অংকের টাকার প্রয়োজনও হয়। রোগীণীর স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড থাকায় কিছুটা সাহায্য মেলে। এরপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বাইরে থেকে প্রয়োজনীয় ওই হাড়কে আনার ব্যবস্থা করেন। আর তা আসার পর শুক্রবার এই সফল অস্ত্রোপচার করা হয়।

তিনি জানিয়েছেন, অস্ত্রোপচারের পর রোগীণী সুস্থ আছেন। বিপ্লববাবু জানিয়েছেন, সোলডার রিপ্লেসমেণ্ট এখনও গোটা ভারতবর্ষে তত জনপ্রিয় হয়নি। মুম্বাই বা দক্ষিণ ভারতে এই ধরণের অস্ত্রোপচার করতে ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকা খরচ হতে পারে। এক্ষেত্রে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিনামূল্যে সাবিত্রী দেবীর এই অপারেশন করার উদ্যোগ নেন। আর সফল এই অস্ত্রোপচারের পর খুশী সাবিত্রীর ছেলে নিরঞ্জন কর্মকার এবং পুত্রবধূ চাঁপা কর্মকার।