মাদ্রিদ: হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটা দিন। তারপরেই বুন্দেসলিগার পর ইউরোপের দ্বিতীয় মেজর সকার লিগ হিসেবে করোনা পরবর্তী সময় বল গড়াবে লা লিগায়। এমন সময় কাতালোনিয়া প্রদেশের এক রেডিও স্টেশনে প্রকাশিত রিপোর্ট ঘিরে চাঞ্চল্য ফুটবল মহলে। বার্সেলোনার ৫ জন ফুটবলার নাকি আক্রান্ত হয়েছিলেন কোভিড১৯-এ। র‍্যাক-১ নামক রেডিও স্টেশনের রিপোর্ট ঘিরে হঠাতই আলোড়ন স্পেন জুড়ে।

শুধুমাত্র ৫ ফুটবলারই নন, একইসঙ্গে ক্লাবের ২ কোচিং স্টাফের শরীরেও করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছিল বলে দাবি করা হয়েছে ওই রিপোর্টে। জানা গিয়েছে মেসিদের ক্লাবের সঙ্গে কাতালোনিয়া ওই রেডিও স্টেশনের যোগাযোগ ভীষণই ঘনিষ্ঠ। তবে কে বা কারা অতিমারীতে আক্রান্ত হয়েছিলেন, সেটা নির্দিষ্টভাবে জানানো হয়নি রিপোর্টে। রিপোর্টের দাবি মোতাবেক গত মে মাসেই করোনা আক্রান্ত বার্সার সকল ফুটবলার ও কোচিং স্টাফেদের শরীরে পরীক্ষামূলকভাবে অ্যান্টিবডি প্রয়োগ করা হয়েছে। এমনকি তাঁরা বর্তমানে সুস্থ।

জানা গিয়েছে লা লিগার ক্লাবগুলিকে দলগত অনুশীলনের সবুজ সংকেত প্রদানের পরেই এমন ঘটনা ঘটে। কিন্তু উদ্বেগজনিত কারণের কথা মাথায় রেখে এমন খবর প্রকাশ থেকে বিরত থেকেছে লা লিগার ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ক্লাবটি। এমনকি ফুটবলার এবং কোচিং স্টাফেরা প্রত্যেকেই দলের সঙ্গে ছিলেন বলে খবর। উল্লেখ্য, করোনা পরবর্তী সময় প্রকাশিত সূচি অনুযায়ী আগামী ১৩ জুন মায়োর্কার বিরুদ্ধে করোনা পরবর্তী সময় নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে কিকে সেতিয়েনের ছেলেরা। তিন মাস পর আগামী ১১ জুন শুরু হচ্ছে করোনা জেরে স্থগিত হয়ে যাওয়া লা লিগা। তবে লিগ পুনরায় শুরু হওয়ার আগে প্রিয় ক্লাবের এমন খবরে স্বাভাবিকভাবেই উৎকণ্ঠায় অনুরাগীরা।

যদিও কাতালোনিয়া প্রদেশের রেডিও স্টেশনে প্রকাশিত এই খবর কতোটা সত্য, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। দিনকয়েক আগে প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো স্যাঞ্চেজের সবুজ সংকেতের পর থেকেই লিগ শুরু করার ব্যাপারে তোড়জোড় শুরু করে লা লিগা কর্তৃপক্ষ। গত শুক্রবার স্পেনের ক্রীড়ামন্ত্রকের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে আগামী ১১ জুন থেকে লা লিগা পুনরায় চালুর ব্যাপারেই সিলমোহর পড়ে। অর্থাৎ, প্রেসিডেন্ট তেবাসের কথামতোই সেভিয়া বনাম রিয়াল বেটিসের ম্যাচ দিয়ে করোনা পরবর্তীতে মেসিদের লিগে ঢাকে কাঠি পড়ার কথা ঘোষণা করা হয়। বিবৃতিতে স্পেনের ক্রীড়ামন্ত্রক জানায়, ‘স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন এবং লা লিগা কর্তৃপক্ষের যৌথ সম্মতিক্রমেই লা লিগা এবং দ্বিতীয় ডিভিশনের বাকি ১১ রাউন্ডের সূচি ঘোষিত হল।’

প্রথমদিন অর্থাৎ ১১ জুন একটিমাত্র ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ১৩ জুন থেকে সপ্তাহান্তে নিয়ম মেনে শুরু হবে অবশিষ্ট রাউন্ডের খেলাগুলি। সবকিছু ঠিকঠাক চললে ১৮ এবং ১৯ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে শেষ রাউন্ডের ম্যাচ। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে পরবর্তী মরশুম শুরুর দিনক্ষণও চূড়ান্ত করা হয়েছে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প