ভোপাল: বিতর্ক পিছনে ফেলে আগামী দু’মাসের মধ্যেই ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে আসতে চলেছে প্রথম রাফায়েল যুদ্ধবিমান। ভারতে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূত আলেকজান্দ্রে জিগলার সরকারিভাবে একথা জানিয়ে দিয়েছেন।

সেপ্টেম্বরের মধ্যেই বায়ুসেনার হাতে রাফাল যুদ্ধবিমান পৌঁছে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জিগলার। চুক্তিমতো ৩৬টি যুদ্ধবিমান যথাসময়ে ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে তুলে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। ভোপালে এক অনুষ্ঠানে গিয়ে এই শীর্ষ ফরাসি কূটনীতিক এক সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, আগামী দু’বছরের মধ্যে ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান তুলে দেওয়া হবে। এই যুদ্ধবিমানগুলি হাতে পাওয়ার পর ভারতীয় বায়ুসেনার ক্ষমতা আরও কয়েক গুণ বৃদ্ধি পাবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

অন্যদিকে, ভারত ও ফ্রান্সের পারস্পারিক সম্পর্কের রসায়নের প্রশংসা করে জিগলার বলেন, “গত ৫০ বছর ভারতের সঙ্গে ফ্রান্সের যে অসাধারণ সম্পর্ক বজায় রয়েছে, তা অন্তত আগামী ৫০ বছর বজায় থাকবে। ভারতীয় বায়ুসেনা দীর্ঘদিন ধরে ফ্রান্সের প্রযুক্তি এবং ইন্দো-ফ্রান্স যৌথ প্রযুক্তি ব্যবহার করেছে। আমরা একসঙ্গে প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে অনেকটাই উন্নতি সাধন করতে পেরেছি। রাফাল দুর্দান্ত একটা যুদ্ধবিমান। ভারত এই বিমানটিকে বেছে নিয়েছে, এতে আমরা সম্মানিত হয়েছি।”

তিনি আরও জানান, “রাফায়েল ইস্যুতে শুরু হওয়া বিতর্কের অবসান এখনও ঘটেনি। সুপ্রিম কোর্টে এখনও রাফাল চুক্তি পুনর্বিবেচনা মামলার শুনানি চলছে। তবে, ভোট মিটে যাওয়ায় সেসব নিয়ে আর খুব একটা মাথা ঘামাচ্ছে না রাজনৈতিক মহল।

যাই হোক, রাফায়েল নিয়ে যাবতীয় বিতর্কের মধ্যেও এই যুদ্ধবিমানটির কার্যকারিতা নিয়ে কারও মনে কোন সন্দেহ নেই। রাফায়েল যুদ্ধবিমানের কার্যকারিতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেনি বিরোধীরাও।