কলকাতা: করোনা আবহে লকডাউন ৫ এর পাশাপাশি শুরু হয়েছে আনলক ১। ছাড় দেওয়া দেওয়া হয়েছে অধিকাংশ ক্ষেত্রে। কন্টেইনমেন্ট জোন বাদে ছন্দে ফিরছে কলকাতা।

আজ ১ জুন থেকে শুরু হয়েছে আনলক ১।ফলে সপ্তাহের প্রথম দিনেই কলকাতায় দেখা গেল মানুষের ঢল। রাস্তায় যানবাহনের তুলনায় যাত্রী সংখ্যা ছিল বেশি। শহরের প্রাণকেন্দ্র ধর্মতলা, শ্যামবাজার, বালিগঞ্জ, হাওড়া ব্রিজসহ সর্বত্র ছবিটা ছিল প্রায় একই। যাত্রী হয়রানির ছবিটা উত্তর থেকে দক্ষিণ, পূর্ব থেকে পশ্চিম সর্বত্র দেখা গিয়েছে।

যে সব চালক ছোট গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বেরিয়েছেন, তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গিয়েছে, শহরের কোথাও ফাঁকা গাড়ি নিয়ে দাঁড়ালেই একসঙ্গে ৭-৮ জন গাড়িতে উঠার চেষ্টা করছে। যেখানে ২-৩ জনের উঠার কথা। কে গাড়িতে উঠবে কে উঠবে না, তা নিয়ে যাত্রীরা নিজেরাই ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ছেন।

এদিকে ভাড়া নিয়ে সরকারের সঙ্গে সমঝোতা না হওয়ায় অধিকাংশ বেসরকারি বাস মিনিবাস রাস্তায় নামেনি। তবে আজ সোমবার সকাল থেকে হাওড়া ব্রিজ দিয়ে সরকারি বাস ও প্রাইভেট গাড়ি চলতে দেখা গিয়েছে। এছাড়া হাতে গোনা কিছু বেসরকারি বাস, মিনিবাসও যাতায়াত করেছে।

সব আসনে যাত্রী নিয়েই বাসগুলি হাওড়া থেকে কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। অফিস টাইমে যাত্রীদের ভিড় বেশি ছিল। হাওড়া ময়দান – শিয়ালদহ, হাওড়া ময়দান – বেহালা সহ বিভিন্ন রুটের কিছু বেসরকারি বাস, মিনিবাস এদিন দেখা গিয়েছে। আবার অনেকেই বাসের ভিড় এড়িয়ে সাইকেল নিয়েই হাওড়া ব্রিজ পার হয়েছেন।

তবে করোনা আবহে যেভাবে মানুষ রাস্তায় নেমে পড়েছে।এবং সামাজিক সুরক্ষা বিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাতায়াত শুরু করেছে, তাতে আগামী দিনে করোনা সংক্রমণ আরও ছড়িয়ে পড়তে পারে । এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প